৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | বিকাল ৩:৪৮
শিমুলিয়া- বাংলাবাজার- মাঝিকান্দি রুটে স্পিডবোট চলাচল শুরু
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৭ অক্টোবর, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

দীর্ঘ ৫ মাস বেশি সময় বন্ধ থাকার পর মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও শরীয়তপুরের মাঝিকান্দি রুটে যাত্রীবহনকারী স্পিডবোট চলাচল শুরু হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ৩ টা’র দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই রুটে স্পিডবোট চলাচল উদ্বোধন করা হয়।

এর আগে চলতি বছরের ৩ মে মাদারীপুরে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় ২৬ জনের প্রাণহানি ঘটলে এই রুটে স্পিডবোট চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

শিমুলিয়া ঘাটের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারি পরিচালক এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন জানান, এই রুটে চলাচল করতে আগ্রহী স্পিডবোট মালিকদের কাছ থেকে ‘রুট পারমিট’ ও ড্রাইভারদের কাছ থেকে ‘যোগ্যতা সনদ’ এর জন্য আবেদন গ্রহণ করা হয়। ১৪৫ জন মালিক ও ড্রাইভার আবেদন করেন। এর মধ্যে ১০১ টি স্পিডবোটকে চালকসহ চলাচলের জন্য রুট পারমিট দেয়া হয়।

এর মধ্যে শিমুলিয়া ঘাটের ৫৩টি, বাংলাবাজার ঘাটের ২৯ টি ও মাঝিকান্দির ১৯টি।

আজ বিকেল থেকেই স্পিডবোটগুলো যাত্রী পারাপার শুরু করবে। প্রতিদিন সকাল ৬ টা থেকে বিকেল ৫ টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত ১২ জন যাত্রী নিয়ে ছোট-বড় প্রতিটি স্পিডবোট চলাচল করবে। রাতে বন্ধ থাকবে। পর্যায়ক্রমে স্পিডবোটের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। অনিবন্ধিত স্পিডবোট চলাচল করে কি না বা অতিরিক্ত যাত্রী ও অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হয় কি না সে বিষয়গুলো নিয়মিত তদারকি করা হবে।

তিনি বলেন, স্পিডবোট বাবদ আগে সরকার কোন রাজস্ব পেত না। স্পিডবোট ও চালকদের নিবন্ধনের মধ্যে আনায় সরকার এই খাত থেকে এখন নিয়মিত রাজস্ব পাবে।

তিনি জানান, এছাড়া দূর্ঘটনা ঘটলে দ্রুত স্পিডবোট-চালকদের শনাক্ত করা সহজ হবে।

শাহাদাত হোসেন জানান, চালকদের আবেদনের মধ্য থেকে ৯ জনকে ডোপ টেষ্ট করানোর পরে পজেটিভ আসায় বাদ দেয়া হয়েছে। আরও কিছু চালকের আবেদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শিমুলিয়া স্পিডবোট ঘাট ইজারাদার সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, সরকারের সকল নির্দেশনা মেনে আমরা স্পিডবোট চলাচল শুরু করেছি। যাত্রীদের প্রতিও আহবান থাকবে তারা নির্দেশনা মেনে চলাচল করবেন।

error: দুঃখিত!