১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৪:০৯
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
শ্রীনগরে ফসলী জমির রকম পরিবর্তনের অভিযোগ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, শ্রীনগর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে ফসলী জমির মাটি কেটে রকম পরিবর্তন করার অভিযোগ উঠেছে।

এরই মধ্যে বেশকিছু ফসলী জমি ও জলাধার স্ক্যাভেটর (বেকু) দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে।

উপজেলার রাঢ়িখাল ইউনিয়নের তিনদোকান বাজারের শ্রীনগর-দোহার আন্ত:সড়কের উত্তর পাশের একাধিক ফসলী জমির মাটি কাটতে দেখা গেছে।

জানা যায়, শাখাওয়াত হোসেন সরকারি জমি লাগোয়া তার কৃষি জমিটি কাটছেন। এখানে সরকারি জমির সীমানা নির্ধারণ না করেই জমি কাটা শুরু করায় জনমনে প্রশ্ন উঠেছে। জমি কাটার কাজে তদারকি করছেন শাখাওয়াত হোসেনের ভাগিনা আলী নূর লস্কর।

দেখা যায়, স্থানীয় চেয়ারম্যানের স্ক্যাভেটর দিয়ে জমির মাটি কাটা হচ্ছে। জমি কেটে পকেট করা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানায়, রিসাল/সারাজ গ্রুপের ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান গড়ার লক্ষ্যে জমি ভরাটের কাজ চলছে। স্থানীয় ভূমি অফিসের তহসীলদার সরেজমিন পরির্দশন করে গেছেন। জমির মালিক শাখাওয়াত হোসেন এখন দেশের বাহিরে অবস্থান করছেন।

আলী নূর লস্কর জানান, আমরা জমি কাটতেছি। আপাদত একটি পকেট করে রাখছি। সংশ্লিষ্ট ভূমি কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেছি। সে অনুমতি দিলে আমরা কাজ করবো।

এ বিষয়ে রাঢ়িখাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক খান বারী জানান, আমি সরকারি কাজের জন্য ভেকুটি এনেছি। ভেকুটি বসা থাকায় তারা ওই কাজের জন্য নিয়েছে। আমি জানতে পেরেছি ওই জমির পাশে ১২ শতাংশ খাস জমি আছে। খাস জমির পরিমাপ না হওয়া পর্যন্ত আমি তাদেরকে কাজ বন্ধ রাখতে বলেছি।

এ ব্যাপারে রাঢ়িখাল ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকর্তা উত্তম কুমার জানান, এটা নাল কৃষি জমি। আমরা তো কাটার অনুমতি দিতে পারি না। এ বিষয়ে এসিল্যান্ড স্যরকে প্রতিবেদন দিয়েছি।

error: দুঃখিত!