২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার | বিকাল ৪:২৪
ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা আটক
খবরটি শেয়ার করুন:

ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা ডা সিলভাকে আটক করেছে পুলিশ।

রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি পেট্রোবাসে বড় ধরনের জালিয়াতি তদন্তের আওতায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শুক্রবার বাড়ি থেকে আটক করেছে ফেডারেল পুলিশ সদস্যরা।

২০১১ সালে ক্ষমতা ছাড়েন লুলা। পেট্রোবাসে কোনও দুর্নীতি বা অর্থ পাচারের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি। তবে পুলিশ তার দুর্নীতির প্রমাণ আছে বলেই দাবি করেছে এবং অবৈধ অর্থ ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কাস পার্টির বিভিন্ন কাজে ব্যয় হয়েছে বলে জানিয়েছে।

পুলিশ জানায়, লুলার বিরুদ্ধে তাদের কাছে ৩৩টি তল্লাশি পরোয়ানা এবং ১১টি আটক পরোয়ানা রয়েছে।

পেট্রোব্রাসে দুর্নীতি ও অর্থপাচারের অভিযোগে দীর্ঘদিন ধরে লুলার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে, যা ‘অপারেশন কার ওয়াশ’ নামে পরিচিত।

এই তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার জন্য রিও ডি জেনিরো, সাও পাওলো ও বাহিয়া রাজ্যে কেন্দ্রীয় পুলিশের প্রায় ২০০ সদস্য নিয়োজিত রয়েছে।

সাও পাওলোর কাছে সাও বের্নারদোতে লুলার বাড়িতে শুক্রবার সকালে অভিযান চালানো হয়। সাও পাওলোতে লুলার ইন্সটিটিউটের প্রধান কার্যালয়েও অভিযানের কথা রয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

লুলার র‌্যাঞ্চ নির্মাণে যেসব কন্সট্রাকশন কোম্পানি অর্থের যোগান দিয়েছে সেগুলোর বিরুদ্ধেও তদন্ত হবে।

এক বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে, “সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলা পার্টি নেতা হওয়া ছাড়াও পেট্রোবাসের পরিচালক কে হবেন সে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভারও ছিল তার ওপরই। ফলে তিনিই মূলত ওইসব অপরাধমূলক কর্মকান্ড থেকে লাভবান হতেন।”

“ওইসব অপরাধের মধ্য দিয়ে তিনি ধনী হয়েছেন এবং তার দলের ব্যয় মিটিয়েছেন এমন প্রমাণ আছে।”

এ মামলায় কয়েক ডজন রাজনীতিবীদ ও নির্বাহীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বা নজরে রাখা হয়েছে।

পেট্রোব্রাসের সঙ্গে চুক্তির চাইতে বেশি অর্থগ্রহণ করা এবং সেই অর্থ ঘুষ হিসেবে প্রদাণে জড়িত সন্দেহে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

২০০৩ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা দুই মেয়াদে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন লুলা।

error: দুঃখিত!