১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | দুপুর ২:২৫
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
লৌহজংয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ‘নাটকীয়’ কমিটি, একজনের পদত্যাগ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২১ জানুয়ারি, ২০২৩, শিহাব আহমেদ (আমার বিক্রমপুর)

সম্মেলনের ৪দিন পর মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি ঘোষণা করেছে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ। এদিকে, কমিটি ঘোষণার ২৪ ঘন্টা না পেরোতেই কেন্দ্রীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ করে পদত্যাগ করেছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার খান ইমন।

শনিবার রাত ৮টা’র দিকে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সায়েমের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক অনিয়মের কারনে প্রতিবাদ স্বরুপ এই পদত্যাগের সিদ্ধান্তের কথা জানান শাহরিয়ার খান ইমন।

গতকাল শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ বাবু ও সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম পিন্টুর স্বাক্ষরে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ৩বছর মেয়াদে ৫সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত এই কমিটিকে ‘নাটকীয় কমিটি’ বলেছেন পদবঞ্চিত একটি অংশ। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। এর মধ্যেই পদত্যাগ করলেন কমিটির প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সায়েম বলেন, ‘আমি এ ধরনের কোন বিষয় দেখি নাই। যেহেতু দেখিনাই তাই এ বিষয়ে এখনই মন্তব্য করতে চাচ্ছি না। আগে পদত্যাগপত্র গৃহীত হোক তারপরে আমরা দেখে, বলার মত কিছু থাকলে তারপরে বলবো।

এদিকে, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদপ্রত্যাশী হামিদুর রহমান জুয়েল কমিটি ঘিরে পদ বাণিজ্যের অভিযোগ তুুলেছেন। এছাড়াও নবগঠিত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার খান ইমন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ বাবুর বিরুদ্ধে পদবাণিজ্যের অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, গেল ১৬ জানুয়ারি লৌহজং কলেজ মাঠে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেদিন একাধিক প্রার্থী থাকলেও কমিটি ঘোষণা ছাড়াই সম্মেলন শেষ করা হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, সভাপতি হিসেবে কম্পিউটার টাইপে হামিদুর রহমান জুয়েল লেখা থাকলেও নামটি কলমে কেটে দেয়া হয়েছে। সেখানে প্রথম সহ সভাপতি হিসেবে মাসুম আহমেদ পিন্টুর নাম রয়েছে। তার নামের পাশে কলমে সভাপতি লেখা রয়েছে। অর্থাৎ, উল্লেখিত প্যাডে হামিদুর রহমান জুয়েলের নাম থাকলেও পরে তার নামটি কমিটি থেকেই বাদ দেয়া হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমন কাটাছেঁড়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে সাধারণ মহলে। এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন পদবঞ্চিত অন্য প্রার্থীরাও।

সদ্য অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতি পদপ্রত্যাশী হামিদুর রহমান জুয়েল অভিযোগ করে বলেন, কমিটিতে পদ দেওয়া নিয়ে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম পিন্টুর সাথে মাসুম আহমেদ পিন্টুর লেনদেন হয়েছে। আমি দীর্ঘ ৮বছর ধরে পরিশ্রম করে লৌহজংয়ে সংগঠনকে দাঁড় করিয়েছি। নিজের পকেটের অর্থ ব্যায় করে মানুষের পাশে দাড়িয়েছি। আমার প্রত্যাশা ছিলো, সংগঠন আমাকে বিমুখ করবেনা।

কমিটিতে সভাপতি হিসেবে তার নাম লেখা থাকলেও পরে কলম দিয়ে কেটে দেয়ার বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

নবঘোষিত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার খান ইমন অভিযোগ করে বলেন, একনায়কতন্ত্রভাবে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আমি সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলাম। আমাকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। আমার ইউনিয়নসহ একাধিক ইউনিয়নের আংশিক কমিটিও ঘোষণা করা হয়েছে। তাহলে আমরা রাজনীতিটা করবো কোথায়? এরকম অদ্ভুতভাবে কমিটি দিতে কখনো দেখিনি। ইমন এসময় জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ বাবুর বিরুদ্ধে পদবাণিজ্যের অভিযোগ করে বলেন, সভাপতি বাবু বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে কমিটিতে নাম কাটাছেড়া করেছেন। কমিটির বিষয়ে জেলার সাধারণ সম্পাদকের কাছে জানতে চেয়েছিলাম, তিনি বলেছেন সভাপতি বাবু ও কেন্দ্রীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল সায়েম এ বিষয়ে সবকিছু জানেন।

অভিযোগের বিষয়ে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আল মাহমুদ বাবু সাংবাদিকদের বলেন, পদবাণিজ্যের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি এই অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানাই। আপনাদের কাছে অনুরোধ আপনারা তৃণমূল পর্যায়ে গিয়ে তদন্ত করে দেখুন অর্থবাণিজ্য কে করেছে।

কমিটিতে কাটাছেঁড়ার বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম পিন্টু বলেন, এটা প্রিন্টিং মিসটেক। শুক্রবার স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় আমাদের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আব্দুল্লাহ আল সায়েম কেন্দ্রীয় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের কাছে কমিটি উপস্থাপন করেন। তাদের উপস্থিতিতেই আমরা জেলার সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক কমিটিতে স্বাক্ষর করেছি। কাটাছেঁড়াও তাদের সামনে হয়েছে। এসময় তার ‍বিরুদ্ধে পদবাণিজ্যের অভিযোগের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

error: দুঃখিত!