১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সোমবার | ভোর ৫:৪৬
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
লাইফ সাপোর্টে থাকা মিরকাদিম পৌর মেয়র সালামের স্ত্রী মারা গেছেন
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১০ এপ্রিল, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিমে মেয়র আব্দুস সালামের বাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ মেয়র হাজী আব্দুস সালামের সহধর্মিণী কানন বেগম (৪০) লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে তিনি শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন বলে ‘আমার বিক্রমপুর’ কে নিশ্চিত করেন মেয়র পুত্র আল রাশেদ মানিক।

এর আগে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল শুক্রবার (৯ এপ্রিল) তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ৭২ ঘন্টার জন্য লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। বিস্ফোরণে তার শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গিয়েছিলো।

মেয়রের সহধর্মিনী কানন বেগম ছাড়াও বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি অপর ১২ জনের মধ্যে পৌরসভার কর্মকর্তা মনির হোসেন (৫০) সহ ২ জন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকি ৯ জনকে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রাত নয়টার দিকে পৌরসভার রামগোপালপুর এলাকায় কাউন্সিলর ও অন্যদের সাথে নিজ বাড়িতে পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র নিয়ে মেয়র আব্দুস সালাম আলোচনায় বসেন। এর কিছুক্ষণ পরই বিকট শব্দে ওই বাড়িতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে পৌর মেয়রের স্ত্রী কানন বেগম (৪০), ২ প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা (৫৫) ও আওলাদ(৪০), কাউন্সিলর দ্বীন ইসলাম, মোঃ সোহেল সহ যুবলীগ কর্মী তাইজুল (২৬), মোঃ মোশারফ (৬২), মনির হোসেন (৫০), শ্যামল দাশ (৪৫), পান্না (৫০), কালু (৪০), কানন (৪০) ও মহিউদ্দিন সহ মোট ১৩ জন দগ্ধ হয়।

ঘটনার পরই ১২ জনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে প্রেরণ করা হয়। বিস্ফোরণের বিষয়টি নিয়ে রহস্য ও প্রতিপক্ষের পরিকল্পিত হামলা হতে পারে বলে অভিযোগ তুলে আহতদের স্বজনরা। তবে ঘটনার পর সিআইডির বোমা নিষ্ক্রিয় টিম, ফায়ার সার্ভিস ও জেলা পুলিশ ঘটনাস্থলের আলামত পরিক্ষার পর বিস্ফোরণটি বাড়ির গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।

error: দুঃখিত!