১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | দুপুর ২:৪২
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জে ছি.ন.তাই করে পালানোর সময় গ.ণ.ধো.লা.ই, পি.স্ত.লসহ আটক দুই
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২৭ জুন ২০২৪, নিজস্ব প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নগদ টাকা লুটে পালানোর সময় বিদেশী পিস্তলসহ ২ জনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

আটককৃত সাইফুল ইসলাম (৩২) ধর্ষণ, অস্ত্র, ডাকাতিসহ ৬ মামলার আসামি। আটকের পর সাইফুল নিজেকে তপু নামে পুলিশের কাছে পরিচয় দেয়। পরে খোঁজখবর নিয়ে সাইফুলের আসল পরিচয় সনাক্ত করে পুলিশ। সে মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার বজ্রযোগিনী ইউনিয়নের গুহপাড়া এলাকার ইদ্রিস মোল্লার পুত্র। অপর আসামি সামসুজ্জামান সনেট (৩৮) রামপাল ইউনিয়নের বল্লালবাড়ি এলাকার মৃত সানাউল্লাহ বেপারীর পুত্র।

বৃহস্পতিবার ভোর ৫ টার দিকে সিরাজদিখানের ইছাপুরা-মুন্সিগঞ্জ সড়কের বনখোলা ব্রীজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। দুপুর ২ টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুজাহিদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের তিনজন ফল ব্যবসায়ী সিএনজি যোগে ঢাকা বাদামতলী যাওয়ার পথে মালখানগর ইউনিয়নের কাজিরবাগ এলাকায় ডাকাতরা একটি মোটরসাইকেল যোগে তাদের গতিরোধ করে মোট ২ লাখ ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। ব্যবসায়ীদের ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এসে দুই ডাকাতকে আটক করে গণধোলাই দেয়। এসময় অপর একজন ডাকাত পালিয়ে যায়।’

ওসি বলেন, ‘অভিযুক্তদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত নগদ এক লাখ টাকা, একটি মোটরসাইকেল ও একটি বিদেশী রিভলভার উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়ে থানায় এনে মামলা দায়ের শেষে আদালতে প্রেরণ করা হয় ‘

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু সাঈদ বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের ডাক চিৎকারে আমরা এলাকাবাসী চারিদিক থেকে ঘেড়াও করে পিস্তলসহ ২ ডাকাতকে আটক করি।’

ভুক্তভোগী ফল ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বলেন, তার ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা, রিক্তার কাজীর ৫০ হাজার টাকা ও খোকন কাজীর ৫ হাজার টাকাসহ মোট ২ লাখ ২০ হাজার টাকা, পিস্তলের ভয় দেখিয়ে মারধর করে নিয়ে যায় ওই ৩ জন।

error: দুঃখিত!