৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৪:১১
মিরকাদিমে ‘নৌকা’ নিয়ে তোলপাড়

খবরটি শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

মুন্সিগঞ্জ, ১৩ অক্টোবর, ২০২০, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিমে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে কে পেতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ তা নিয়ে পুরো মিরকাদিমে চলছে তোলপাড়।

চায়ের দোকান থেকে সভা-সেমিনার সবখানেই চলছে এই আলোচনা। আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন মিরকাদিম পৌরসভার বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন ও ব্যবসায়ী মনসুর আহমেদ কালাম।

বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন গত পৌরসভা নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েই আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পান। সেইসময়ে তার তুমুল জনপ্রিয়তার কারনে আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন দেয়। তিনি ‘নৌকা’ নিয়ে বিপুল ভোটে জিতেও যান।

অন্যদিকে ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মনসুর আহমেদ কালাম গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চাইলেও মুন্সিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন দেয়নি। পরে ঐ নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মেয়র শাহিনের সাথে প্রতিদ্বন্দীতা করে বিপুল ভোটে হেরে যান কালাম। তার নিজের কেন্দ্রেও তিনি পাশ করতে পারেননি।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে মিরকাদিম পৌরসভার পরবর্তী নির্বাচন। এই নির্বাচনেও বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতা মনসুর আহমেদ দুজনেই আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী।

তারা দুজনেই জেলা আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ পর্যন্ত লবিং শুরু করেছেন।

মুন্সিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মহিউদ্দিন সমর্থন দিচ্ছেন বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন কে। ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতা মনসুর আহমেদ কালামের সমর্থনে রয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস।

ভোটারদের চাঙা রাখতে এই দুই নেতাই ‘নৌকা’ প্রাপ্তিতে নিজেদের অবস্থানের কথা বিভিন্ন সভা-সেমিনার ও আলোচনায় প্রচার করছেন। তবে শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন কার কপালে জোটে সেটির জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছেই।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মনসুর আহমেদ কালাম ‘আমার বিক্রমপুর’ কে বলেন, ‘আমি বিভিন্ন জায়গায় কথা বলেছি। বর্তমানে মিরকাদিমে যে দুঃশাসন চলছে সবাই তার বিরুদ্ধে একমত পোষণ করেছেন। তাই আমি আশাবাদী দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ নিয়েই নির্বাচন করবো।

মিরকাদিম পৌরসভার বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন ‘আমার বিক্রমপুর’ কে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একটি বৃহত্তম জননন্দিত দল। জনগণ যাকে বেশি পছন্দ করবে দল অবশ্যই সেটিই বিবেচনা করবে। তাই আমি আশাবাদী পুনরায় দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ নিয়ে আগামী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করবো।’

error: দুঃখিত!