২১শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার | দুপুর ২:৪১
মুন্সিগঞ্জে প্রতিবন্ধি নারীকে ধর্ষনের ঘটনায় গ্রাম্য মাদবর সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০, টংগিবাড়ী প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জে প্রতিবন্ধি নারীকে ধর্ষনের ঘটনায় গ্রাম্য মাদবর সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জানা যায়, শালিসি-বিচারের কথা বলে ধর্ষণের বিষয় ধামাচাপা দেওয়ার অপরাধে মুন্সিগঞ্জের টংগিবাড়ী থানায় ধর্ষক ও বিচারকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

টংগিবাড়ী থানা সুত্রে জানা গেছে, গত ৪ ডিসেম্বর তারিখে মুন্সিগঞ্জের টংগিবাড়ী উপজেলার হাসাইল বানারী ইউনিয়নের বিদগাঁও গ্রামে মীম (ছদ্মনাম) নামের এক প্রতিবন্ধী নারীকে নির্জন মাঠে নিয়ে একই গ্রামের আজিজল মৃধ্যার ছেলে রাসেল মৃধ্যা (১৮) ধর্ষন করেন।

এ সময় ওই রাস্তার পথচারী মোহাম্মদ আলি জমাদ্দার মেয়েটির চিৎকার শুনে হাতে থাকা টর্চ লাইটের মারার সাথে সাথেই ঘটনাস্থল থেকে ধর্ষক রাসেল পালিয়ে যায়।

পরে বিষয়টি যেনো জানাজানি না হয় সেজন্য শালিসি বৈঠকের কথা বলে স্থানীয় হারুন জমাদ্দার ও মজিবুর মৃধ্যা বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে।

ঘটনার ১০দিন অতিবাহিত হলেও নির্যাতিতা বিচার পাননি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি টংগিবাড়ী থানা পুলিশ জানতে পেরে খোঁজ-খবর নিয়ে ঘটনার সত্যতা যাচাই করে ভুক্তভোগী পরিবারকে থানায় নিয়ে এসে ধর্ষক রাসেল মৃধ্যা ও ধর্ষকের পক্ষ নিয়ে ধর্ষণের বিচার না করায় স্থানীয় হারুন জমাদ্দার ও মজিবর মৃধ্যার বিরুদ্ধে নির্যাতিতার বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

টংগিবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুন-উর-রশিদ জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পেরে ভুক্তভোগী পরিবারটির পাশে দাড়াই এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়।

সাথে সাথেই পুলিশকে ঘটনাস্থলে পাঠালে পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ করে আসামিরা পালিয়ে যায়। ওসি আরো বলেন, পরবর্তীতে এই ধরনের ঘৃণ্য ঘটনায় যারা শালিস-দরবার করে সাধারণ মানুষকে হয়রানি করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

error: দুঃখিত!