১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | দুপুর ২:০৭
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মায়ের কোলে থেকেই প্রাণ যায় আলিছার, আটক ট্রাক ড্রাইভারের বিরুদ্ধে মামলা
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৭ জুলাই ২০২৪, নিজস্ব প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের মুক্তারপুর-সিপাহিপাড়া সড়কের শান্তিনগর এলাকায় শাহ সিমেন্ট কোম্পানির পণ্যবাহী ট্রাকের চাকায় পিষে মা লিপি বেগমের কোলে থাকা দশ মাস বয়সী শিশু মেয়ে আলিছাসহ দুজনেরই মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এসময় প্রাণে বেঁচে যায় আলিছার বড় বোন মারিয়া আক্তার (১৮) ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালক শাওন (২৮)।

এ ঘটনায় গতকাল অভিযুক্ত শাহ সিমেন্ট কোম্পানির ট্রাক ড্রাইভার তুহিন মল্লিককে (২৪) আটক করে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা। পরে রাতে তার বিরুদ্ধে মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় সড়ক ‍পরিবহণ আইনে মামলা দায়ের হয়।

গতকাল শনিবার বিকাল ৫ টার দিকে রামপাল ইউনিয়নের শান্তিনগর এলাকায় ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

মর্মান্তিক এ খবর শুনে স্থানীয় দুই শতাধিক নারী-পুরুষ ঘটনাস্থলে জড়ো হন। এসময় সড়কেই পড়েছিলো নিহত লিপি বেগম ও তার শিশু মেয়ে আলিছার মরদেহ।

পরে কয়েকজন স্থানীয়রা মা লিপি বেগমের কোল থেকে শিশু আলিছার মরদেহ সরিয়ে সড়কের পাশে নিয়ে কাপড় দিয়ে পেচিয়ে রাখেন। তবে লিপি বেগমের মরদেহ দীর্ঘক্ষণ পড়ে থাকে সড়কেই। সাথে থাকা ওড়না দিয়ে সেটিকে ঢেকে দেন স্থানীয়রা। প্রায় এক ঘন্টা পর পুলিশ এসে সড়ক থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে।

এদিকে দুর্ঘটনার পর মুহুর্তেই দশকানি এলাকায় সিমেন্ট ফ্যাক্টরির ট্রাকটিকে আটক করে আগুন ধরিয়ে দেয় স্থানীয় উত্তেজিত জনতা। আগুন ছড়ানোর আগেই ফায়ার সার্ভিস এসে নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় স্থানীয়রা ট্রাক ড্রাইভারকে আটকে গণপিটুনি দেন। পরে ট্রাফিক পুলিশের দুই সদস্য মারধরের শিকার ট্রাক ড্রাইভারকে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িতে উঠিয়ে জনতার রোষানল থেকে রক্ষা করেন।

নিহত লিপি বেগম (৩৫) ও তার দশ মাসের মেয়ে আলিশার বাড়ি মুন্সিগঞ্জ সদরের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের আনন্দপুর গ্রামে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নিহত লিপি বেগমের বড় মেয়ে মারিয়া আক্তার বলেন, ‘আমার ছোট বোনসহ আমরা ৩ জন চিকিৎসা নিয়ে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা করে সিপাহিপাড়া পথে বাড়ি ফিরছিলাম। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা মুক্তারপুরগামী ট্রাকটি আমাদের অটোরিকশাকে সামনে থেকে ধাক্কা দিলে আমার মা লিপি ও তার কোলে থাকা আমার বোন মিশুক থেকে ছিটকে ট্রাকের চাকার নিচে পড়ে যান। প্রথমে ট্রাকটি থামলেও সেটি পুনরায় সামনের দিকে চলতে থাকলে চাকায় পিষে মৃত্যু হয় দুজনেরই। এসময় আমি ও অটোরিকশা চালক শাওন প্রাণে বেঁচে যাই।’

ঘটনার সময় ধারণকৃত সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, মুক্তারপুর-সিপাহিপাড়া সড়কের বাইন্নাবাড়ি ব্রিজের ঢালে শান্তিনগর এলাকায় পৌঁছালে নিহতদের বহনকারী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাটি সামনে থাকা আরও বেশ কয়েকটি যানবাহনকে ওভারটেক করে ডান দিকে এগিয়ে যেতে চাইলে বিপরীত দিক থেকে আসা শাহ সিমেন্ট কোম্পানির পণ্যবাহী ট্রাকের সাথে ধাক্কা লাগে। এসময় অটোরিকশার ডান পাশে বসা নিহত লিপি ও শিশু আলিছা ছিটকে সড়কে পড়ে ট্রাকের পেছনের চাকার নিচে চলে যান। ট্রাকটি প্রথমে থামলেও পুনরায় সামনের দিকে চলতে থাকে। এতে চাকায় পিষে ওই দুইজনের প্রাণহানি ঘটে।’

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘দুর্ঘটনায় নিহত মা ও মেয়ের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে রাতে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আটক ট্রাক ড্রাইভারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে, আজ আদালতে প্রেরণ করা হবে। ট্রাকটি থানায় জব্দ আছে।’

error: দুঃখিত!