১৭ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বুধবার | বিকাল ৪:০৫
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
এবার ‘গুগল প্লে’-তে বিক্রি হবে বাংলাদেশি অ্যাপ
খবরটি শেয়ার করুন:

বাংলাদেশের অ্যাপ ডেভেলপারদের জন্য সুখবর! ‘গুগল প্লে’তে এখন থেকে বাংলাদেশের অ্যাপ ডেভেলপাররা অ্যাপ বিক্রি করতে পারবেন।

গত মঙ্গলবার রাতে গুগলের সাপোর্ট সেন্টার ‘লোকেশনস ফর ডেভেলপার অ্যান্ড মার্চেন্ট রেজিস্ট্রেশন’ বিভাগে বাংলাদেশের নাম যুক্ত করে।

এতদিন বাংলাদেশ থেকে ‘গুগল প্লে’ ব্যবহারের সুবিধা থাকলেও বাংলাদেশি অ্যাপ ডেভেলপারদের অ্যাপ বিক্রির সুবিধা ছিল না।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘বাংলাদেশের মোবাইল অ্যাপলিকেশন ডেভেলপারদের দীর্ঘদিনের দাবি আজ পূরণ হলো। গত বছরের মার্চ মাসে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে সিনিয়র কাউন্সিল (পাবলিক পলিসি) উইলসন এল হোয়াইটের নেতৃত্বে গুগল কর্তৃপক্ষের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেছিলাম। ওই বৈঠকে আমাদের অন্যতম এজেন্ডা ছিল, বাংলাদেশের ডেভেলপাররা যেন মার্চেন্ট অ্যাকাউন্ট করতে পারে, যা দিয়ে ইন-অ্যাপলিকেশন পেমেন্ট ও পেইড-অ্যাপলিকেশন পাবলিশ করা সম্ভব।’

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘গত মাসে গুগলের উচ্চপদস্থ প্রতিনিধি আমাদের সঙ্গে আবারও বৈঠকে বসে। আমি সেই বৈঠকেও পুনরায় বাংলাদেশের ডেভেলপারদের পক্ষ থেকে তাঁদের প্রাণের এই দাবি উত্থাপন করি। আজ গুগলের মার্চেন্ট অ্যাকাউন্টের তালিকায় গুগল বাংলাদেশকে যুক্ত করার মধ্য দিয়ে গুগল তাদের আগে দেওয়া আশ্বাসের বাস্তবায়ন করল। এ জন্য আমি গুগল কর্তৃপক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।’

প্রতিমন্ত্রী পলক আরো বলেন, ‘গুগল মার্চেন্টের এই সুবিধা আমাদের দেশের মোবাইল অ্যাপলিকেশন ডেভেলপারদের জন্য নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করবে এবং মোবাইল অ্যাপলিকেশন ও গেম ডেভেলপমেন্টকে আরো প্রসারিত করবে। এর ফলে আমাদের দেশীয় গেম ও অ্যাপলিকেশন ডেভেলপারদের বৈশ্বিক পদচারণা বাড়বে বলেই আমি বিশ্বাস করি। এভাবেই আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসনিার নেতৃত্বে ও প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টার তত্ত্বাবধানে ধীরে ধীরে ডিজিটাল ইকোনমির পথ প্রশস্ত করতে সক্ষম হব। আইসিটি খাতে সৃষ্টি হবে দুই মিলিয়ন কর্মসংস্থান ও অর্জন করব পাঁচ বিলিয়ন ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা।’

error: দুঃখিত!