২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সোমবার | সকাল ৬:৫৩
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সীগঞ্জ সদরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে শিক্ষার্থীকে পেটালেন শিক্ষক
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মাঠপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাগর (১৩) নামের এক শিক্ষার্থীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত শিক্ষক ই-হক কোচিং সেন্টার এর পরিচালক নাহিয়ান (৪৫)।

গতকাল ৪সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টা’র দিকে ই-হক কোচিং সেন্টার এর মুন্সীগঞ্জ শাখায় এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সময় শিক্ষক নাহিয়ান এর সাথে দুজন সহকারী ছিলেন বলে জানিয়েছে আহত শিক্ষার্থী সাগর। তাদের একজনের নাম মিশন (১৫), ও পল্লব (১৮)। এরা দুজনেই ই-হক কোচিং সেন্টারের শিক্ষার্থী।

সাগর আজ ৫সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুর ১২টা’র দিকে আমার বিক্রমপুর  কে বলেন, ‘আমি ই-হক কোচিং সেন্টারে পড়তে যেতে না চাইলে কোচিং সেন্টারের পরিচালক নাহিয়ান আমাকে দীর্ঘদীন ধরে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছিলো। বিষয়টি আমি আমার পিতা মজিবর রহমান কেও জানিয়েছিলাম। এরপর গতকাল আমি আমার সাইকেল সাড়াতে দোকানে গেলে সেখান থেকে আমাকে নাহিয়ান সহ আরও দুজন ডেকে নিয়ে কোচিং সেন্টারের পাশে আরেকটি রুমে নিয়ে বেধম মারধর করে। তাদের ঐ রুমে শিক্ষার্থীদের মারধর করার জন্য শিকল,দড়ি,বেত সবসময় মজুদ থাকে। পরে খবর পেয়ে আমার স্বজনরা আমাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে জরুরী চিকিৎসা দেয়।’

এবিষয়ে শিক্ষক নাহিয়ান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। খোজ নিয়ে জানা যায়, বর্তমানে তিনি পলাতক রয়েছেন।

এঘটনায় আজ দুপুরে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগটি দায়ের করেছেন আহত শিক্ষার্থীর পিতা মোঃ মজিবুর রহমান। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি ইউনুচ আলী আমার বিক্রমপুর কে জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি পুলিশ খুব দ্রুত খতিয়ে দেখবে।

error: দুঃখিত!