২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
রবিবার | সকাল ৭:১১
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জে একসাথে থাকতে চাওয়া দুই যুবককে নিয়ে তোলপাড়
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২৮ মার্চ ২০২৩, গজারিয়া প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

টিকটকে পরিচয়ের সূত্র ধরে একসাথে থাকতে চাওয়া মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার দুই যুবককে নিয়ে এলাকায় রীতিমত তোলপাড় চলছে। সম্প্রতি পরিবারের বাঁধায় ভাড়া বাসায় উঠেছিলেন দুইজন। কিন্তু সেখানেও আপত্তি।

এর মধ্যে এক যুবককে শিকলে বেঁধে মারধরের অভিযোগ উঠেছে অপর যুবকের পরিবারের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের লস্করদী গ্রামের কামরুল ইসলামের ছেলে রিজভী (২৩) এর সাথে পার্শ্ববর্তী নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার কাজীরগাঁও গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে শাকিল ওরফে শ্রাবণ (২৩) এর মধ্যে এক বছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটকে পরিচয় হয়।

শাকিলের বাবা শফিকুল ইসলাম জানান, তার ছেলে শাকিল সানারপাড়া এলাকায় একটি কারখানায় চাকরি করতেন। গেল এক মাস ধরে তার এক বন্ধু রিজভীকে নিয়ে মোগরাপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকছে সে। সর্বশেষ রোববার রাত দশটার দিকে তারা খবর পান রিজভীর পরিবারের লোকজন তাকে মারধর করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

এদিকে রিজভীর মা সেলিনা বেগম বলেন, রিজভী স্থানীয় একটি কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। শাকিলের সাথে পরিচয় হওয়ার পর তার ছেলের আচরণে পরিবর্তন আসে। এর আগেও একবার শাকিলের সাথে পালিয়ে গিয়েছিল সে। পরবর্তীতে পুলিশের সহায়তায় তাকে খুঁজে বের করে বাড়িতে নিয়ে আসেন তারা। কিন্তু গত প্রায় একমাস ধরে দুজনেই তাদের নিজ বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় একসাথে থাকা শুরু করেন তারা। ছেলের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে রোববার কৌশলে শাকিলকে ডেকে আনেন তিনি। তবে শাকিলকে দেখামাত্র স্থানীয় লোকজন উত্তেজিত হয়ে পড়ে। এ সময় তাকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা অবস্থায় শাকিল নিজেই নিজের গায়ে আঘাত করেন বলে দাবি তার।

তবে শাকিলের দাবি ইফতারের দাওয়াত দিয়ে রোববার বিকাল পৌণে ছয়টার দিকে তাকে ডেকে আনা হয়। কৌশলে তার হাত পায়ে শিকল জড়িয়ে তাকে আম গাছের সাথে বেঁধে রাখা হয়। এ সময় রিজভীর পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়দের মারধরে জ্ঞান হারায় সে। জ্ঞান যখন ফিরে পান তখন রাত আনুমানিক ৯টা। পরে তাকে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

রিজভী জানান, এক বছর আগে নরসিংদী জেলার ড্রিম হলিডে পার্কে শাকিলের সাথে দেখা হয় তার। সেসময় তারা একে অপরের সাথে কথা বলে। পরে টিকটকে শাকিলের আইডি খুঁজে পায় সে। এরপর তারা প্রায়ই দেখা করতো। পরিবারের লোকজন এতে বাঁধা দেওয়ায় গেল এক মাস আগে বাড়ি ভাড়া নিয়ে একসাথে থাকা শুরু করেন দুইজন। এসময় শাকিলের প্রতি তার আকর্ষণের কথাও স্বীকার করেন রিজভী।

এদিকে শাকিলকে মারধরের ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে গজারিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

গজারিয়া থানার ওসি মোল্লা সোহেব আলী বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত স্পর্শকাতর হওয়ায় পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

error: দুঃখিত!