২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শনিবার | সকাল ৮:০৫
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
১৪ বছর পর প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটি
খবরটি শেয়ার করুন:

দীর্ঘ ১৪ বছর পর ফের বাংলা ছবিতে জুটি বাঁধতে চলেছেন প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণা। পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায়ের নতুন ছবি ‘প্রাক্তন’-এ তাঁদের আবার দেখা যাবে। ২০০১ সালে ‘জামাইবাবু জিন্দাবাদ’ ছবির পর প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণা জুটির আর কোনো ছবি মুক্তি পায়নি।

কোনো এক অজ্ঞাত কারণে বাণিজ্যিক বাংলা ছবিতে আর জুটি বাঁধেননি দুজনে।  টলিপাড়ায় কান পাতলেই ফিসফাস শোনা যেত, আর এই জুটিকে কেউ পর্দায় ফিরিয়ে আনতে পারবে না। তবে কারণটা কী, সেটা কিন্তু জানত না কেউই। দীর্ঘ এই সময়ে অনেক পরিচালকই চেষ্টা করেছেন বাংলা ছবির অন্যতম জনপ্রিয় এই জুটিকে নিয়ে ছবি করার। কিন্তু সফল হননি কেউই। অবশেষে পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা রায় সেই অসাধ্য সাধন করলেন।

দীর্ঘ সময় পর রুপালি পর্দায় জুটি বাঁধার সম্ভাবনা তৈরি হতেই যথেষ্ট খুশি প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণা। সম্প্রতি মধ্য কলকাতার একটি নামি হোটেলে উপস্থিত থেকে ‘প্রাক্তন’ ছবি নিয়ে মুখ খুললেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।  বললেন, ‘ঋতুর সঙ্গে অনেকদিন কাজ করা হয়নি। আমরা বাংলা ছবির জনপ্রিয় জুটি থাকাকালেই কাজ ছেড়েছিলাম। তারপর দুজনের জীবনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। দুজনেই একটা মানের অভিনেতা এবং অভিনেত্রী হয়ে ওঠার চেষ্টা করেছি। দীর্ঘদিন বাদে ফের আমাদের জুটি ফিরছে। কিন্তু রসায়নটা অন্যরকম। আর সেটাই পরিচালকদের কাছে চ্যালেঞ্জ।’

অন্যদিকে ১৪ বছরের ব্যবধানে আবার প্রসেনজিতের সঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে ঋতুপর্ণা জানান, ‘কেন এতদিন  আমরা একসঙ্গে কাজ করিনি সেটা বড় কথা নয়। ইতিহাস সৃষ্টি করা যায়, কিন্তু তা ধরে রাখা কঠিন। আমরা দুজনেই পেশাদার এবং আবেগপ্রবণ। নতুনভাবে ফের আমরা জুটি বাঁধছি। তাই দর্শকদের আশীর্বাদ ও ভালোবাসা আমাদের প্রয়োজন।’

জনপ্রিয় এই জুটিকে একসঙ্গে পর্দায় নামাতে পেরে খুশি পরিচালকরাও। ‘প্রাক্তন’ ছবির এক পরিচালক নন্দিতা রায় জানালেন, ‘২০০২ সালে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণার কথা মাথায় রেখেই গল্পটা লিখেছিলাম। সেই সময় সবে জুটিটা ভেঙেছে। ফলে তখন এই জুটিকে দিয়ে কাজ করানো খুব শক্ত ছিল। এতদিন পর শিবপ্রসাদ অনেক চেষ্টা করে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণাকে রাজি করিয়েছে।’

‘প্রাক্তন’ ছবি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অপর এক পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘আজকাল তো বাংলা ছবি নিয়ে নানা রকমের পরীক্ষা-নিরীক্ষা হচ্ছে। প্রচুর ডিটেকটিভ ছবি হচ্ছে। প্রেমের ছবি প্রায় হচ্ছে না বললেই চলে। সেখানে দাঁড়িয়ে বলতে পারি, আমাদের এই ছবি দর্শকদের সেই প্রত্যাশা মেটাবে। আমাদের এই ছবি সম্পূর্ণ পারিবারিক ছবি।’

প্রসেনজিৎ নিজেও এই ছবি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেন, ‘আমরা এমন একটা ছবিতেই ফিরতে চেয়েছিলাম, যে ছবি দেখে দর্শকরা বলবে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণা ছাড়া এই ছবি হয় না। হিরো-হিরোইনের ইমেজ থেকে বেরিয়েও অভিনয়ের ম্যাজিক ধরে রাখাই এখন আমাদের কাছে অন্যতম চ্যালেঞ্জ।’

প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা অভিনীত ‘প্রাক্তন’ ছবির শুটিং শুরু হবে আগামী মাসে। ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী বছরের বাংলা নববর্ষে।

error: দুঃখিত!