৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার | দুপুর ১২:১৯
হাত-পা বাঁধা ও মুখে টেপ লাগানো অবস্থায় নিখোঁজ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৩ নভেম্বর, ২০২২, নিজস্ব প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার পদ্মা নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় মুন্সিগঞ্জের লৌহজং থেকে নিখোঁজ গৃহবধূর হাত পা বাঁধা ও মুখে টেপ লাগানো অবস্থায় অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে সুরেশ্বর নৌ পুলিশ ফাঁড়ি পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ঘড়িসার ইউনিয়নের চণ্ডীপুর লঞ্চঘাট এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয় বলে জানান নড়িয়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান।

তিনি জানান, লাশটি অর্ধগলিত হওয়ায় প্রথমে ঐ নারীর পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। পরে সিআইডি তার পরিচয় শনাক্ত করে।

শরীয়তপুর সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরনবী ‘আমার বিক্রমপুর’ কে জানান, সন্ধ্যার দিকে ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে তার পরিচয় শনাক্ত হওয়া গেছে। লাশটি একেবারে গলিত অবস্থায় থাকায় ফিঙ্গার নিতে খুব সমস্যায় পড়তে হয়েছিলো। তিনি কিভাবে মারা গেছেন তা এখনি বলা যাচ্ছে না। আগামীকাল লাশের ময়নাতদন্ত হবে। এরপর বলা যাবে তিনি কিভাবে মারা গেছেন।

গৃহবধূ আখিনুর আক্তার (৩০) গত ১ নভেম্বর উপজেলার বেজগাঁও এলাকায় তার শশুরবাড়ি থেকে গাওদিয়া ইউনিয়নের ঢুলুগাও এলাকায় বাবার বাড়িতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন। পরে পরিবার লৌহজং থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। তিনি গাওদিয়া এলাকার আফজাল শেখের মেয়ে।

নড়িয়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান জানান, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

error: দুঃখিত!