৩১শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শনিবার | রাত ১:২৩
সরকারি রেটের দুই গুন বেশি দাম দিয়ে কোরবানির হাটের ইজারা নিলেন চেয়ারম্যান
খবরটি শেয়ার করুন:
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

মুন্সিগঞ্জ, ১৪ জুলাই, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় সরকারি রেটের দুই গুন বেশি দাম দিয়ে ‘খিদিরপাড়া কোরবানির পশুরহাট’ ইজারা নিয়েছেন খিদিরপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন।

লৌহজং ‍উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হুমায়ুন কবির জানান, উপজেলায় ৬টি অস্থায়ী হাটের অনুমোদন দিয়েছে জেলা প্রশাসন। এর মধ্যে ৩ টি হাটের ইজারা হয়েছে। পুনরায় ইজারা হবে ৩টি’র। ইজারাদার না পাওয়া গেলে ৩টি হাট বাতিল করা হবে। উপজেলায় ১ কোটি ৩৫ লাখ ১০ হাজার টাকায় সর্বোচ্চ দর দিয়ে খিদিরপাড়া হাটের ইজারা নিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বেপারী। এই হাটের সরকারি রেট ছিলো ৬০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৬৭ টাকা।

আরও পড়তে পারেন: মুন্সিগঞ্জে কোরবানির হাটে আসছে পশু, বিক্রি হবে অনলাইনেও

আয়তন ও রাজস্ব আদায়ের দিক থেকে এবছর মুন্সিগঞ্জের সবচেয়ে বড় কোরবানির পশুর হাট এটি।

জানা যায়, এই হাটের ইজারা পেতে সর্বমোট ৩ জন দরপত্র কিনেছিলেন। এর মধ্যে আশরাফুল মুরাদ নামের একজন ১ কোটি ৩২ লাখ টাকায় হাটের দর দিয়ে ইজারাপত্র জমা দেন, সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাচ্চু শেখ ইজারা জমা দেন ৬৯ লাখ টাকা। তবে ১ কোটি ৩৫ লাখ ১০ হাজার টাকায় সর্বোচ্চ দর দিয়ে ইজারা নেন খিদিরপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন।

এ বিষয়ে খিদিরপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলছেন, গত ৮ বছর যাবৎ আমি এই হাটের ইজারা নেই। এই হাটের সৃষ্টি থেকে আমি ও আমার পরিবার জড়িত। একটি পক্ষ এবছর আমি যাতে হাট না পাই সেই চেষ্টা করেছে। কিন্তু তারা সফল হতে পারেনি। হাটে কোরবানির পশু উঠতে শুরু করেছে। কয়েকদিনের মধ্যেই হাট জমে উঠবে।

error: দুঃখিত!