২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | ভোর ৫:৩৯
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
শ্রীনগরে প্রার্থীর পক্ষে টাকা বিতরণের সময় ভিডিও করায় দুই যুবককে মারধ.র
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৫ মে ২০২৪, শ্রীনগর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনে দোয়াত-কলম প্রতীকের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এম মাহবুব উল্লাহ কিসমতের পক্ষে টাকা বিতরণের সময় মোবাইলে ভিডিও ধারণ করায় জনি ইসলাম (২৫) ও আতিক (২২) নামের দুই যুবককে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

টাকা বিতরণের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে এলাকায় আলোচনা তুঙ্গে।

সোমবার (১৩ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে টাকা বিতরণের ঘটনা ঘটে।

ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়- ষোলঘর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. দিপু মিয়া আরও কয়েকজনকে সাথে নিয়ে ব্যাগ ভর্তি টাকা উপস্থিত কয়েকজনের মাঝে বিতরণ করছেন।

জানা গেছে, তিনি দোয়াত কলম প্রতীকের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত এর সমর্থক।

ভিডিওটিতে আরও দেখা যায়,  দিপু মিয়া একটি শপিং ব্যাগ ভর্তি টাকা নিয়ে বিল্লাল হোসেন, আনিল আহম্মেদ জয়, হেজা ইসলাম আজিজুলসহ বেশ কিছু কর্মী সমর্থকের মাঝে বিতরণ করছেন। এসময় জনি ইসলাম ও আতিক নামে দুই যুবক মোবাইলে ভিডিও ধারণ করলে দোয়াত-কলম কর্মী সমর্থক দিপু মিয়া গংরা তাদের বেধম মারধর করে। আহতদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে দোয়াত কলম কর্মী-সমর্থকদেরকেও মারধর করে। পরবর্তীতে অবৈধভাবে টাকা বিতরণের ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ষোলঘর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগ নেতা সাইদুল মুন্সীর অভিযোগ, প্রতীক পাওয়ার পর রাতের বেলায় দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে দিপু মিয়া ব্যাগ ভর্তি টাকা নিয়ে ভোটারদের মাঝে বিলি করেন। তিনি এসময় ৩১ জন ভোটারের কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেন। এসময় আমার ভাগিনা সম্পর্কের জনি ইসলাম ও আতিক টাকা বিতরণের দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করলে তাদের মারধর করা হয়।

টাকা বিতরণে অভিযুক্ত দিপু মিয়ার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি টাকা বিরতণ করতেই পারি। আমি শ্রমিকদের মাঝে টাকা বিতরণ করেছি।’

শ্রীনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাফফাত আরা সাঈদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। আমাকে তাৎক্ষনিক জানালে ব্যবস্থা নেয়া যেত। এ ব্যাপারে সহকারী রির্টাণিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিন।

error: দুঃখিত!