২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শনিবার | সকাল ৮:২৭
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মোল্লাকান্দি থেকে ককটেল উদ্ধারের দাবি পুলিশের
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৬ মার্চ, ২০২১, সদর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

ককটেল হামলায় একজনের নৃশংস মৃত্যুর ঘটনার পর মুন্সিগঞ্জ সদরের ‘ককটেল জনপদ’ খ্যাত মোল্লাকান্দিতে পরপর দুইদিন অভিযান চালিয়ে তাজা ককটেল ও টেটা উদ্ধারের দাবি করেছে পুলিশ। তবে কোন আসামি ধরতে পারেনি পুলিশ।

গতকাল সোমবার (১৫ মার্চ) পরিচালিত এই অভিযানে ৭০ জন পুলিশ সদস্য অংশ নেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পুলিশ বলছে, দুইদিনের অভিযানে যাদের বাড়ির সামনে থেকে ককটেল  ও টেটা উদ্ধার করা হয়েছে তারা দুজনেই জালাল হত্যা মামলায় এজহার ভুক্ত আসামি।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক জানিয়েছেন, মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের নয়া আমঘাটা এলাকায় আলু পরিবহনের ট্রলির ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে জালাল বেপারী নামে ১ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চালায় পুলিশ। গতকাল সোমবার বিকেলে ওই এলাকায় অভিযান চালালে হত্যা মামলার আসামি খালেকের বাড়ির পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় বালতি ভর্তি ককটেল উদ্ধার করা হয়।

ওসি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে বালতিতে ১০ থেকে ১২টি ককটেল থাকতে পারে। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে সবগুলো ককটেল গুনে দেখা সম্ভব হয়নি। আসামিরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

প্রসঙ্গত, নয়া আমঘাটা এলাকায় ট্রলি গাড়িতে আলু তোলাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় দেলু ও জালাল বেপারী গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলছিলো। এর জের ধরে গত শনিবার (১৩মার্চ) জালাল বেপারীর উপর হামলা চালিয়ে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায় দেলু গ্রুপ। এসময় একটি ককটেল জালাল বেপারীর মাথায় লেগে বিস্ফোরণ হলে মাথার খুলি উড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত জালালের স্ত্রী রোজিনা বেগম বাদি হয়ে ২৪ জনকে আসামি করে মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

error: দুঃখিত!