২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
রবিবার | রাত ৪:৩২
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জ: লাখ টাকার সোনার ব্রেসলেট পেয়েও ফিরিয়ে দিয়েছে সামিম
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২৯ জানুয়ারি ২০২৪, ডেস্ক রিপোর্ট (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে লাখ টাকার সোনার ব্রেসলেট পেয়েও ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংসায় ভাসছে রেষ্টুরেন্টে কর্মরত ১২ বছরের শিশু সামিম।

উপজেলার রশুনিয়া ইউনিয়নের উপজেলা মোড় সংলগ্ন শেখ আলাউদ্দিন কমপ্লেক্সের শাহী রেস্তোরাঁয় গেল ২৭ জানুয়ারি এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, দিনমজুর বাবার অভাবের সংসারে ৪ ভাই বোনের মধ্যে বড় ১২ বছরের শিশু সামিম। মা-বাবা ভাই বোন নিয়ে সিরাজদিখান বাজার সংলগ্ন কাঠপট্টি মিলনের বাড়িতে ভাড়া থাকেন তারা। লেখাপড়া ছেড়ে বাবাকে সাহায্য করতে ১ মাস যাবত ২ হাজার টাকা মাসিক বেতনে কাজ নেন উপজেলার রশুনিয়া ইউনিয়নের উপজেলা মোড় সংলগ্ন শেখ আলাউদ্দিন কমপ্লেক্সের নিচে শাহী রেস্তোরাঁয়।

প্রতিদিনের মত সামিম কাজ করতে গিয়ে ২৬ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে টেবিলের নিচে দেখেন সোনার তৈরী ১ ভরি ওজনের একটি হাতের ব্রেসলেট পরে আছে। সাথে সাথে সেটি শাহী রেস্তোরাঁর মালিক মো. ইউসুফ হাওলাদারের জমা দেন সামিম। পরে ইউসুফ হাওলাদার ব্রেসলেট এর প্রকৃত মালিককে পেয়ে যথার্থ প্রমাণ সাপেক্ষে সেটি ফেরত দেন।

উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের কংশপুরা গ্রামের লিপি বেগম বলেন, রেষ্টুরেন্টে খেতে গিয়ে সোনার তৈরী ১ ভরি ওজনের হাতের ব্রেসলেটটি হারিয়ে ফেলি। পরে শাহী রেস্তোরাঁয় এসে খোঁজ করলে মালিক জানান তারা সেটি পেয়েছেন। ১২ বছরের এ ছেলের সততায় মুগ্ধ হয়ে আমি ছেলেটিকে ১ হাজার টাকা দিয়ে পুরস্কৃত করি।

শিশু সামিম বলেন, আমি সব সময়ের মত টেবিল মুছতে গিয়ে নিচের দিকে দেখি একটি চেইন পরে আছে আমি চেইনটা হাতে নিয়ে সাথে সাথে মালিকের কাছে বুঝিয়ে দেই। পরে তিনি চেইনের মালিককে সেটি বুঝিয়ে দেন। আমাদের অভাবের সংসার। তাই কাজ করে বাবাকে সাহায্য করি।

শাহী রেস্তোরাঁর মালিক মো. ইউসুফ হাওলাদার বলেন, ১২ বছরের ছেলের সততা দেখে আমি মুগ্ধ। আমি তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করছি। আমি এ ছোট ছেলের সততা দেখে তাকে ৫ শত টাকা পুরস্কার দেই।

error: দুঃখিত!