১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৪:২৫
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জের গণসদন সংস্কারে সাংস্কৃতিক জোটের নেতা জাকিরের ‘খোলা চিঠি’
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২১ আগস্ট, ২০২১, ডেস্ক রিপোর্ট (আমার বিক্রমপুর)

৭ বছর আগে আগুনে পুড়ে যাওয়া মুন্সিগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নাট্যমঞ্চ ‘গণসদন’ সংস্কারে এবার ‘খোলা চিঠি’ দিয়েছেন মুন্সিগঞ্জ জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হোসাইন জাকির।

‘খোলা চিঠি’তে তিনি গণসদনের জায়গা বেদখল হয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বলেছেন, ‘গণসদন হলটি অতি দ্রুত সংস্কার করে সাংস্কৃতিক কর্মিদের মাঝে ফিরিয়ে দেওয়া হোক এবং মুন্সিগঞ্জের হারানো ঐতিহ্য ফিরে আসুক’।

পাঠকদের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হোসাইন জাকিরের ‘খোলা চিঠি’র পুরো অংশ তুলে ধরা হলো-

শিল্প-সংস্কৃতির চর্চা মানুষকে সৃষ্টিশীল করে। তাদের মাঝে মনুষত্ববোধ জাগ্রত হয়। মানবিক সমাজ গঠনে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত, জ্ঞানী ও মানবিক চেতনাসম্পন্ন মানুষ তৈরি করে। এজন্য শিক্ষার সঙ্গে সংস্কৃতির সমন্বয় জরুরি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কে লালন করে আমরা যারা সংস্কৃতি চর্চা করি, আমাদের নাটক, গান, নৃত্য, আবৃত্তির মাধ্যমে প্রকাশ করার চেষ্টা করি, যা দেশ, সমাজ ও সাধারন মানুষের কল্যানে। সভ্যতার জনপদ আমাদের মুন্সিগঞ্জ তথা এক সময়ের বিক্রমপুর নামে পরিচিত ছিলো। এখানে শিক্ষা সংস্কৃতি খেলাধুলার বেশ সুনাম।

বর্তমানে সংস্কৃতি চর্চায় বিশেষ করে নাট্য চর্চায় মুন্সিগঞ্জ এর নাট্য কর্মিরা দেশ বিদেশে সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন এবং আলোকিত মুন্সিগঞ্জ গড়ায় বিশেষ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। এখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সদস্যভূক্ত ৫২ টি সংগঠন নিয়মিতভাবে বিভিন্ন জাতীয় এবং দলের নিজস্ব অনুষ্ঠান করে আসছে।

এই সভ্যতার জনপদে সংস্কৃতি চর্চার একমাত্র হল ছিলো ঐতিহ্যবাহি ‘গণসদন’। এই ‘গণসদন’-এ বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহি নাট্যদল সূমহ এবং বিখ্যাত অভিনেতা নাট্যকার, নির্দেশক এই ‘গণসদন’হলে নাটক করেছে ।

কিন্তু দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে, জেলা শিল্পকলা একাডেমী ছাড়া জেলার এক মাত্র সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত ‘গণসদন’ এর জায়গাটি বিভিন্নভাবে বিভিন্ন সময় দখল করার পায়তারা চলছে। এখনও বেদখল হয়ে আছে। আমরা সংস্কৃতি কর্মি হিসেবে তা মেনে নিতে পারি না।

‘গণসদন’ আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্যের সাথে মিশে আছে তা রক্ষা করা সবার উচিত। তাই প্রশাসনের কাছে আমরা আহবান জানাচ্ছি ‘গণসদন’ হলটি অতি দ্রুত সংস্কার করে সাংস্কৃতিক কর্মিদের মাঝে ফিরিয়ে দেওয়া হোক এবং মুন্সিগঞ্জের হারানো ঐতিহ্য ফিরে আসুক। আমাদের চেতনাকে কোনভাবেই নষ্ট করা যাবে না। একটা ইতিহাস ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি কে কবর রচনা করা যাবে না। আসুন আমরা সবাই সুস্থ-সংস্কৃতি চর্চার পরিবেশ তৈরি করে দেই আগামী প্রজন্মের কাছে। তা নাহলে আগামী প্রজন্ম আপনাদের কে ক্ষমা করবে না।

সাব্বির হোসাইন জাকির। সাধারণ সম্পাদক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, মুন্সিগঞ্জ।

error: দুঃখিত!