১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৩:২৯
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জে মেয়েকে ধর্ষণ থেকে বাঁচাতে ছেলেকে হত্যা করলো বাবা-মা
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৯ জানুয়ারি, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় ডোবা থেকে হাসান (১৭) নামের এক  কিশোরের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় বাবা-মা ও বোনকে আটক করেছে পুলিশ।

এসময় যৌনাঙ্গ কেটে তার মৃত্যু নিশ্চিত করেন তারা।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, পিতাঃ মোঃ শামীম শিকদার (৪০), মাঃ হাসিনা বেগম ও নিহতের বোন (১৫)।

আজ শনিবার সকালে উপজেলার হোসেন্দী বাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার পর ডোবায় লাশে ফেলে দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে পিতা শামীম।

তার দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ জানিয়েছে, গত ২১ডিসেম্বর ঘটনার রাতে নিহত হাসানের ছোটবোন প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে হাসান তাকে নিজের ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।মেয়ের চিৎকার শুনে ছুটে গিয়ে পিতা শামীন ধর্ষণ থেকে বাঁচাতে হাসানকে ধরে তার মুখে বালিশ চাঁপা দেয়, মা হাসিনা বেগম পা ধরে রাখে। এসময় ছোটবোন ছুরি দয়ে হাসানের পুরুষাঙ্গ কেটে হত্যা করে। পরে তারা মিলে বাড়ির পাশের ডোবায় লাশ ফেলে দেয়।

ঘটনার ১৮ দিন পর ৮জানুয়ারি শুক্রবার ডোবা থেকে দুর্গন্ধ ও মরদেহ দেখছে বলে পুলিশকে খবর দেয় তারা। সকাল ১০টায় ডোবা থেকে অর্ধগলিত অবস্থায় হাসানের লাশ উদ্ধার করে গজারিয়া পুলিশ।

লাশ উদ্ধারের সময় হাসানের পরিবারের সদস্যরা জানায় ২১তারিখ থেকে হাসান নিখোঁজ ছিলো।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রইছ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদে নিহত হাসানের বাবা-মা ও বোন হত্যার কথা স্বীকার করেছে। এঘটনায় নিহতের ছোট ভাই হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। মূলত ছোটভাই হোসেনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই হত্যা রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছে। আটককৃতদের রবিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে।

error: দুঃখিত!