১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সোমবার | দুপুর ২:৩৮
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজের স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২১ আগস্ট ২০২৩, নিজস্ব প্রতিবেদক (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী অহিদুল মুন্সিকে (৪০) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ কাজী আবদুল হান্নান এ রায় দেন।

মুন্সিগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক জামাল উদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, সাজাপ্রাপ্ত অহিদুল মুন্সী শ্রীনগর উপজেলার বাঘাডাঙ্গা গ্রামের শাহ আলম মুন্সীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২৩ বছর আগে ভুক্তভোগী পারভীন বেগমের সাথে কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামি অহিদুলের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে শম্পা (১৯), ইয়াছিন (১২), মীম (৭) এবং জান্নাত (৪) নামের ৪ সন্তান রয়েছে। অহিদুল পেশায় ভ্যানচালক। তার সাথে একই গ্রামের মৃত করিম উদ্দিন ডাফার ছেলে রাজা মিয়া (৫০) ও ইনসান ডাফার (৬০) জমিজমা নিয়ে পূর্ব বিরোধ ছিলো। ২০২১ সালের ২ জুন রাত ৮টার দিকে আসামি অহিদুল মুন্সী ভ্যান চালিয়ে বাড়িতে এসে প্রতিদিনের মদ রাতের খাওয়া-দাওয়া শেষে তার স্ত্রী এবং তার ছোট মেয়ে জান্নাতকে (৩) সহ তাদের টিনের দোচালা বসত ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে অহিদুল তার স্ত্রীকে ঘুম থেকে উঠিয়ে বলে আমাদের নামে থানায় মামলা হয়েছে আমাদের ধরতে পুলিশ আসতেছে চলো আমরা পালিয়ে যাই।

এ কথা বলে অহিদুল তার স্ত্রীকে নিয়ে পালানোর জন্য বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার পূর্ব দিকে শ্রীনগর উপজেলার বালাশুর বাঘাডাঙ্গা গ্রামের কামলা ডাঙ্গার বিলে মোসলেম মীরবলের পুকুরের পূর্ব পাড়ের করলা ক্ষেতের উত্তর পাশে নিয়ে ২০২১ সালের ৩ জুন রাত আড়াইটার দিকে ধারালো কাঁচি দিয়ে পারভিন বেগমের গলায় পোঁচ দিয়ে জবাই করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে ওই পুকুরের উত্তর পূর্ব কোনে কচুরিপানার নীচে লুকিয়ে রাখে।

পরে লাশ ভাসতে দেখে শ্রীনগর থানায় স্থানীয়রা সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পারভিন বেগমের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। পরে পুলিশ এ ব্যাপারে কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামিকে ঘটনার সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে নিজ স্ত্রীকে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করে।

এ ঘটনায় নিহত পারভিন বেগমের ভাই মো. জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে শ্রীনগর থানায় হত্যা মামলা করেন। পরে তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করলে সে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এ ঘটনায় মামলার সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আসামিকে দোষি সাব্যস্ত করে বিচারক তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল মতিন জানান, পারভিন বেগমকে ২০২১ সালের ৩ জুন রাতে তার স্বামী অহিদুল মুন্সি নির্মমভাবে হত্যা করে। সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে তাকে দোষি সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড এবং অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

error: দুঃখিত!