২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার | বিকাল ৪:৪৬
মুন্সিগঞ্জে দিন দিন বেড়েই চলেছে কিশোর অপরাধ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২০ আগষ্ট, ২০২০, আরাফাত রায়হান সাকিব (আমার বিক্রমপুর)

দিয়াশলাই দেওয়া নেওয়াকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের মৃধাবাড়ি এলাকায় প্রতিপক্ষ কিশোরদের হাতে খুন হয় ১৫ বছরের কিশোর হানিফ তালুকদার।

একই উপজেলায় গত ৭ই আগষ্ট কমল পানিও খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষে জড়ায় বয়রাগাদী ও গোবরদী গ্রামের অর্ধশতাধিক কিশোর।

পরদিন ৮ আগষ্ট এ ঘটনার বিচার সালিশে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে স্থানীয় এক সাংবাদিকের উপর হামলা চালায় ঐ কিশোররা।

এদিকে গত ১৩ আগষ্ট শ্রীনগর উপজেলার বীরতারা এলাকায় বন্ধুদের সাথে নৌকায় ঘুরতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরেছে কলেজ ছাত্র শান্ত (২২), বন্ধুরা জানায় নৌকা ডুবে শান্ত নিহত হয়েছে।

তবে নিহত শান্তের পরিবারে দাবি নৌকা ডুবানোর নাটক সাঁজিয়ে পরিকল্পিত ভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে তাকে।

একই উপজেলার দেউলভোগ এলাকায় গত ৭ই মে সিগারেট খাওয়াকে কেন্দ্র করে কুপিয়ে হত্যা করা হয় মোঃ রবিউল নামের নামের ১৫ বছরের আরেক কিশোরকে। আর গত ১৬ই জুন মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলায় মিশুক চালাতে না দেওয়ায় ১৪ বছর বয়সী মিশুকচালক তুহিনকে দেওয়ায় হাত পা বেঁধে পানিতে ফেলে হত্যা করে তারই বন্ধু মেহেদী।

একটি দুটি বা ৩টি ঘটনা নয়, প্রতিনিয়ত জেলার বিভিন্ন এলাকায় কিশোররা জড়িয়ে পরছে এমনই নানা অপরাধে। বেশ কিছু এলাকায় আবার ত্রাসের কারণও উগ্র কিশোররা।

অন্যদিকে কিশোর অপরাধ বেড়ে যাওয়া স্থানীয়দের মাঝে আলোচনায় এসেছে বর্তমান সময়ের আলোচিত শব্দ “কিশোর গ্যাং”।

তবে মুন্সিগঞ্জে কিশোরদের দ্বারা বিচ্ছিন্ন অপরাধ ঘটলেও এমন কোন সঙ্গবদ্ধ সন্ত্রাসী গ্রুপ নেই বলে দাবি করেছে জেলা আইনশৃংখলা বাহিনীর কর্তা ব্যাক্তিরা।

এ বিষয়ে বেশ কয়েকজন সুশীল সমাজের প্রতিনিধির সাথে কথা হলে তারা জানায়, পারিবারিক অবহেলা ও সঠিক পর্যবেক্ষণের কারণেই শিশু কিশোররা অপরাধে জড়িয়ে পরছে।

সামাজিক বিশৃংখলা আর বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি চলমান থাকায় স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায়ও কিশোরা অপরাধের দিকে ঝুঁকে পরতে বেশি সুযোগ পাচ্ছে। তবে সঠিক পরিচর্যা আর সচেতনতার মাধ্যমে অপরাধ কমিয়ে আনা সম্ভব ।

সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচাঁর্জ ফরিদ উদ্দিন বলেন, যেকোন ধরণের অপরাধ দমনে আইনশৃংখলাবাহিনী তৎপর রয়েছে। মৃধাবাড়ি এলাকায় কিশোর নিহত হওয়ার ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। ইতিমধ্যে অনিক নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেদায়েতুল ইসলাম ভূইয়া জানান, বীর তারায় কলেজ ছাত্র শান্ত নিহতের ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর রবিউল হত্যায় ৪জন আসামীর মধ্যে ১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে । বাকি ৩ জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

error: দুঃখিত!