৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৩:৩৬
মুন্সিগঞ্জে ত্রাণ চাওয়ায় বৃদ্ধা মহিলাকে থাপড়ালেন ইউপি মেম্বার

খবরটি শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

মুন্সিগঞ্জ, ২৬ এপ্রিল, ২০২১, টংগিবাড়ী প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের টংগিবাড়ী উপজেলায় করোনায় বিপর্যস্ত এক বৃদ্ধা নারীকে থাপড়িয়েছেন এক ইউপি সদস্য। এছাড়াও ওই বৃদ্ধার পিঠের মধ্যে চর-থাপ্পর মারারও অভিযোগ পাওয়া গেছে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

আজ সোমবার (২৬ এপ্রিল) টংগিবাড়ী উপজেলার আউটশাহী গ্রামে গিয়ে জানা যায়, ওই গ্রামের হত-দরিদ্র লোকমান শেখের স্ত্রী তাসলিমা বেগম রবিবার দুপুরে আউটশাহী ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল ইসলাম মোল্লার কাছে সরকারী ত্রাণ চাইতে যান।

আউটশাহী গ্রামে মেম্বারের বাড়ির সামনে ওই ইউপি সদস্যকে পেয়ে সরকারী ত্রাণ চেয়ে তাসলিমা তার ভোটার আইডি কার্ড ও ছবি দিতে চাইলে ওই ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম বৃদ্ধা তাসলিমা বেগমের বাম গালে থাপ্পর মারে। এ সময় ওই বৃদ্ধা মাটিতে পরে গেলে নুরুল ইসলাম তার পিঠে একাধিক থাপ্পর মারেন।

বৃদ্ধা তাসলিমা বেগম জানান, সরকারী সাহায্য আসছে শুনে আমি নুরুল ইসলাম মেম্বারের কাছে গিয়ে তাকে আমার ছবি ও ভোটার কার্ড দিয়ে আমাকে কিছু সাহায্য দিতে বলি। এ কথা বলার সাথে সাথে মেম্বার আমার বাম গালে জোড়ে একটি থাপ্পর মারে। এ সময় আমি মাটিতে পরে গেলে আমার পিঠেও কয়েকটি চর থাপ্পর মারে। পরে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে। মেম্বারের থাপ্পরের পর আমার কান ও গলা দিয়ে রক্ত বের হয়। এখন আমি বাম কানে কিছু শুনতে পাইনা। কালকে রোজা রেখে আমি মেম্বারের কাছে গিয়েছিলাম আজ ব্যাথায় রোজাও রাখতে পারিনি।

তিনি বলেন, অনেকদিন আমি নুরুল ইসলাম মেম্বারের বাড়িতে কাজ করে দিয়েছি। সে আমাকে কাজের কোন টাকা দেয়নি। কাজ করে দিলে তার বিনিময়ে সে আমাকে সরকারী ত্রাণ দিতো। এখন আমার বয়স হয়েছে কাজ করতে পারিনা বলে সে আমায় ত্রাণও দেয়না।

এ ব্যপারে অভিযুক্ত টংগিবাড়ী উপজেলার আউটশাহী ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম থাপ্পড় মারার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি বেশ কয়েক বার ওকে ত্রান দিয়েছি। বার বার ত্রাণ চেয়ে সে আমাকে বিরক্ত করে। ত্রাণ দেই আমি কিন্তু ও বলে বেরায় ওকে সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য লাইলি বেগম ত্রাণ দিয়েছে। ওইদিন ও ত্রাণ চেয়ে আমাকে বারবার বিরক্ত করছিলো। অন্য কারনে আমার মাথাটা একটু গরম ছিলো আমি আস্তে একটা থাপ্পর দিয়েছি।

error: দুঃখিত!