২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার | রাত ১০:৪০
মুন্সিগঞ্জে গৃহবধূ হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৫ জানুয়ারি, ২০২৩, শ্রীনগর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে প্রবাসীর স্ত্রী গৃহবধূ মনিকা আক্তার হালিমাকে হত্যার অভিযোগ এনে প্রতিবাদে ও আসামিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

আজ রোববার বেলা ১১ টা’র দিকে উপজেলার রাঢ়ীখাল ইউনিয়নের বালাশুরের নতুন বাজার এলাকায় মানববন্ধনে স্বজন ও এলাকাবাসী অংশ নেয়।

মৃত মনিকা আক্তার হালিমা (২১) বালাশুর ইউনিয়নের নতুন বাজার গ্রামের মনির কড়ালের মেয়ে ও বালাশুর বানিয়াবাড়ির মফিজ আকনের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী কালামের স্ত্রী।

কর্মসূচিতে স্বজনরা দাবি করেন, মৃত মনিকা আক্তার হালিমা আত্মহত্যা করেনি, তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে  শশুড়বাড়ির লোকজন। এ ঘটনায় থানায় মামলার আবেদন করা হলেও ঘটনার ৬ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ মামলা নেয়নি।

এসময় মানববন্ধনকারীরা মৃত গৃহবধূ মনিকার শ্বশুর মফিজ আকন ও শ্বাশুড়ি মাকসুদা বেগমসহ জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধনে স্বজনসহ ২ শতাধিক এলাকাবাসী অংশ গ্রহণ করে।

মনিকার মা অভিযোগ করে বলেন, ৬ মাস যাবৎ আমার মেয়ের বিয়ে হয়েছে। স্বামী ৩ মাস আগে বিদেশ চলে যায়। এরপর থেকে মেয়ের উপর নানাভাবে অত্যাচার চালিয়ে আসছে শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও দেবর। তারাই আমার মেয়েকে গলায় রসি দিয়ে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে। আমার মেয়ের হত্যাকারীদের বিচার চাই।

মনিকার ভাই বলেন, গত ১০ জানুয়ারি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খবর পেয়ে গিয়ে দেখি ঘরের দরজায় তালা। এসময় দেখি আরেক দরজা ভেতর থেকে লাগানো। ঐ দিন রাত ১০ টার দিকে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে আমার বোনের লাশ উদ্ধার করে। পরে আমরা থানায় গিয়ে অভিযোগ করি। কিন্তু এখনো পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

শ্রীনগর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় শ্রীনগর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে, বিষয়টি তদন্তাধিন আছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ও তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জানুয়ারি মঙ্গলবার রাত ৯টা’র দিকে শ্রীনগর উপজেলার রাঢ়ীখাল ইউনিয়নের বালাশুরের বানিয়াবাড়ি এলাকায় শশুড় বাড়ি থেকে গৃহবধূ মনিকা আক্তার হালিমার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে মৃত গৃহবধূর শশুড় ও শাশুড়ি পলাতক রয়েছে।

error: দুঃখিত!