২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ১১:৩৯
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মুন্সিগঞ্জে ঋণের চাপে অটোচালকের প্রাণ বিসর্জন!
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ২৭ নভেম্বর ২০২৩, নিজস্ব প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের টংগিবাড়ী উপজেলার আব্দুল্লাপুরে ভাড়া বাসা থেকে মানিক (৪৫) নামের এক অটোচালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার দিবাগত গভীর রাতে উদ্ধারের পর আজ সোমবার বেলা ১১টায় মরদেহটি মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত মানিক সিরাজদিখান উপজেলার তালতলা গ্রামের মৃত মালেক বেপারীর ছেলে।

স্থানীয় ও পরিবারের দাবি, ঋণের কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারা ও থানায় একমাত্র উপার্জনের অটোরিকশাটি জব্দ থাকায় মানসিক হতাশাগ্রস্ত হয়ে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে সে।

স্থানীয় ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, নিহত মানিক প্রায় ১২বছর যাবত আব্দুল্লাপুর এলাকার আজিজুল ঢালীর বাড়ির ভাড়াটিয়া ছিলো। জীবিকার জন্য এনজিও থেকে দুই দফা ঋণ নিয়ে কেনা অটোরিকশাটি সম্প্রতি চুরি হয় তার।

এরপর পুনরায় ঋণ নিয়ে অটোরিকশা কিনে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলো দরিদ্র এই অটোচালক। তবে গত কয়েকদিন আগে অটোরিকশা ছিনতাইকারীর চক্রের কবলে পরে কোন মতে প্রাণে বাঁচে সে। পরে ওই ঘটনায় পুলিশ মামলার আলামত হিসাবে অটোরিকশাটি জব্দ করে। এরপর থেকে কর্মহীন ছিলো মানিক। একদিকে অটোরিকশা না পাওয়া ও অন্যদিকে এনজিওর টাকা পরিশোধ করতে না পরে হতাশাগ্রস্ত ছিলো সে।

রোববার দিবাগত রাতে ঘর থেকে বের হয়ে না ফিরলে তাকে খুঁজতে বের হন স্ত্রী। পারে বাড়ির একাংশের একটি নির্জন ঘরে লাশ দেখতে পায় তার। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

স্থানীয় জুৎসা বেগম বলেন, অটো কিনার জন্য সে অনেকগুলো কিস্তি উঠায়ছিলো। সপ্তাহে ৬হাজার টাকা করে ২৪ হাজার টাকা কিস্তি পরিশোধ করতে হতো তাকে। কিন্তু পুলিশ অটো রিস্কাটি জব্দ করে রাখায় সে কিস্তি পরিশোধ করতে পারছিল না। এজন্যই রাগে ক্ষোভে আত্মহত্যা করেছে সে।

নিহতের স্ত্রী মাসুদা জানান, তার সাথে আমার কোন পারিবারিক কলহ ছিল না। তাকে কিস্তি নিয়ে এ পর্যন্ত তিনটি অটো রিস্কা কিনে দিয়েছি। টাকা না দিতে পেরে সে আত্মহত্যা করেছে। এছাড়া তো অন্য কোন কারণ দেখছি না। রাতে আমার সামনে ঘর থেকে বের হয়েছে পরে খুঁজতে গিয়ে দেখি নির্জন একটি ঘরে তার লাশ পরা ছিলো।

টংগিবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজিব খান জানান, খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে আজকে সকালে সেটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে । এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলার প্রস্তুতি চলছে । অটো ছিনতাইয়ের ঘটনায় তার একটি মামলা ছিলো। সে মামলায় অটোরিকশা আলামত হিসেবে জব্দ ছিল বলে জানতে পেরেছি।

error: দুঃখিত!