৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | রাত ৪:০১
মুন্সিগঞ্জে আম দেয়ার কথা বলে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রকে বলাৎকার

খবরটি শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

মুন্সিগঞ্জ, ২৭ এপ্রিল, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় আম দেয়ার লোভ দেখিয়ে ১০ বছর বয়সী এক ছেলে শিশুকে জোড়পূর্বক বলাৎকার করেছেন শিশুটির প্রতিবেশী জাকির হোসেন (৩০)।

গত রোববার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে  উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের পোড়াচক বাউশিয়া নয়াকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর বিষয়টি ধামাচাপা দিতে অভিযুক্ত জাকির ভিকটিমের পরিবারকে চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু ভিকটিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আজ তারা বিষয়টি জাতীয় হেল্পলাইন নাম্বার-৯৯৯ এ জানান। এরপর গজারিয়া থানা পুলিশ ভিকটিমের বাড়িতে এসে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেন ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নির্যাতনের শিকার শিশু তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। আর অভিযুক্ত জাকির পোড়াচক বাউশিয়া নয়াকান্দি গ্রামের সিদ্দিক দেওয়ানের ছেলে।

নির্যাতনের শিকার শিশু জানায়, গত রোববার দুপুরে তার প্রতিবেশী সিদ্দিক দেওয়ানের ছেলে জাকির হোসেন (৩০) তাকে আম দেওয়ার কথা বলে তার ঘরে ডেকে নেয়। ঘরে যাওয়ার পরে গামছা দিয়ে হাত-পা এবং মুখ বেঁধে ফেলে পাশবিক নির্যাতন করে। এসময় রক্তক্ষরণে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে দা দেখিয়ে ঘটনাটি কারো কাছে প্রকাশ করতে নিষেধ করে জাকির। পরবর্তীতে বাসায় ফিরে সব ঘটনা মায়ের কাছে খুলে বললে তাকে একটি ফার্মেসিতে নিয়ে যাওয়া হয়। ফার্মেসি মালিক সাদেক সরকার প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে দেয়।

গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মাহি আলম জানান, প্রাথমিকভাবে সেক্সুয়াল হ্যারাসমেন্টের বিষয়টি প্রমাণ পেয়েছেন তারা।

ভুক্তভোগী ওই শিশুর মা জানান, ডাক্তারের কাছ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত হতে পেরে পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে চেয়েছিলেন তারা। তবে জাকির স্থানীয় প্রভাবশালীদের মাধ্যমে তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দেন।

এ বিষয়ে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রইছ উদ্দিন ‘আমার বিক্রমপুর’ কে জানান, এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা চলছে।

error: দুঃখিত!