২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | সন্ধ্যা ৬:৩৯
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষায় কানাডায় বাংলাদেশি প্রবাসীদের অনন্য উদ্যোগ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, আমার বিক্রমপুর ডেস্ক (আমার বিক্রমপুর)

কানাডার উইন্ডসরে তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘মাল্টিন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ফেস্ট (এমএমএলএফ) ২০২৩।

আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি উইন্ডসর শহরের কাবোটো ক্লাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানটির আয়োজক বাংলাদেশি অলাভজনক সংস্থা ‘হারমোনি কালচারাল রিসার্চ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ফোরাম’। যেখানে অংশ নেবে বিশ্বের অন্তত ২৮টি দেশ।

বৈশ্বিক করোনা মহামারিজনিত সংকটে দুই বছর বিরতির পর এবারের আয়োজন ঘিরে বেশ উচ্ছ্বসিত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

আয়োজকরা জানান, এবারের আয়োজনে ২৮টিরও বেশি দেশের শিল্পীরা তাদের নিজস্ব সংস্কৃতিক পরিবেশনা নিয়ে হাজির হবেন। যার মাধ্যমে দেশগুলো নিজ নিজ সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য তুলে ধরার মাধ্যমে বিশ্বের বুকে নিজেদের অবস্থান জানান দিতে পারবেন। একইসাথে বাংলাদেশি শিল্পীরাও হাজার মাইল দূরের দেশে তুলে ধরবেন লাল সবুজের বাংলা ও বাঙালির সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। অনুষ্ঠানটির টাইটেল স্পন্সর হিসেবে থাকছেন, উইন্ডসর শহরের স্থানীয় বাংলাদেশি রিয়ালটোর রনি হায়দার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, উইন্ডসর শহরের মেয়র ড্রিউ ডিল্কেন্স। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন, লিবারেল পার্টির সাংসদ এরেক কুসমিয়েরচেক এমপি, এনডিপি পার্টির সাংসদ ব্রায়ান মেসি এমপি, পুলিশ প্রধান জেসন বেল্লাইরে ও ফায়ার চিফ স্টিফেন লাফোরেট।

কানাডায় বাংলাদেশি অলাভজনক সংগঠন হারমনির উদ্যোগে বিভিন্ন দেশের সমন্বয়ে আয়োজিত এই উৎসব তৈরি করেছে দৃষ্টান্ত, যা বাংলাদেশিদের জন্য গর্বের। এর আগে হারমনি আমেরিকা ও কানাডার বিভিন্ন শহরে মঞ্চনাটক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে। উইন্ডসর শহরের স্থানীয় বাংলাদেশি শিল্পীরাই হারমনির মূল চালিকাশক্তি।

বাংলা সংস্কৃতিকে বিশ্বের মানচিত্রে উচ্চস্থানে নেয়ার পাশাপাশি হারমনি চ্যারিটি, নারীর অধিকার বাস্তবায়ন, নতুন অধিবাসীদের সহযোগিতা, পরিবেশ সচেতনতা ও যুব উন্নয়নে অন্যতম ভূমিকা পালন করে আসছে।

বর্তমানে হারমনির পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন মুস্তাফিজুর রহমান, ড. ওমর ফারুক, খালেক জামান, ড. মোন্তাজির রহমান ও মুনতাসির নাসির সৈকত। ২০২১ সালে হারমোনির অন্যতম পরিচালক মো. আবদুল কাইয়ুম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে মৃত্যুবরণ করেন।

উল্লেখ্য, ইউনেসকো স্বীকৃত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতেই ২০১৯  সালে প্রথমবারের মতো হারমনি আয়োজন করে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব। ঠিক তার পরের বছর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ঠিক করোনা মহামারীর পূর্বে দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করে এই উৎসব। যেখানে ৩২টি দেশের শিল্পীরা ৩৪টি ভাষায় তাদের নিজস্ব সংস্কৃতি পরিবেশন করেন।

error: দুঃখিত!