২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | রাত ১১:২২
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
‘ভবিষ্যতে বাড়ার আশঙ্কায় তেলের দাম কমানো হয়নি’
খবরটি শেয়ার করুন:

আন্তর্জাতিক বাজারে ভবিষ্যতে তেলের দাম বাড়তে পারে এ আশঙ্কায় জ্বালানির দাম কমানো হয়নি বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। আজ রোববার সংসদের প্রশ্নোত্তরপর্বে তিনি এ কথা জানান।
বিকেলে সংসদে এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, অদূর ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়তে পারে, এই আশঙ্কায় আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কিছুটা কমলেও দেশীয় বাজারে জ্বালানির দাম কমানো হয়নি।
সানজিদা খানমের এক প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ সমুদ্রে ‘মাল্টি ক্লায়েন্ট সাইসমিক সার্ভে’ পরিচালনার জন্য পাঁচটি আন্তর্জাতিক জিওফিজিক্যাল কোম্পানির দরপত্র মূল্যায়ন শেষে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। যা বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। দেশে গ্যাসের চাহিদা বাড়ায় সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক উৎপাদন বণ্টন চুক্তির আওতায় সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের উদ্যোগ নেওয়া হয়। প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, গ্যাসের উৎপাদন ও সরবরাহ বাড়াতে ২০২১ সাল নাগাদ ১৮টি উন্নয়ন কূপ, ১১টি ওয়ার্ক ওভার কূপও ১৬টি অনুসন্ধান কূপ খনন করা হবে।

 

সাবিনা আক্তারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে কোনো এলাকাতে আবাসিক খাতে পাইপলাইনে গ্যাস দেওয়ার কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই। চাহিদা মেটাতে প্রতিদিন ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের সমতুল্য এলএনজি আমদানি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। ২০১৭ সাল নাগাদ এই এলএনজি জাতীয় গ্রিডে যোগ হতে পারে।
মোস্তাফিজুর রহমানের প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, দেশের ৭৪ শতাংশ মানুষ বর্তমান বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় রয়েছে। ২০২১ সাল নাগাদ দেশের সকল মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে। এ সময়ের মধ্যে উৎপাদন ক্ষমতা দাঁড়াবে ২৪ হাজার মেগাওয়াটে।

error: দুঃখিত!