২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
শনিবার | সকাল ৬:৪০
পদ্মা সেতু দিয়ে একইদিনে রেল চলা নিয়ে সংশয়ে রেলমন্ত্রী
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, শিহাব আহমেদ (আমার বিক্রমপুর)

পদ্মা সেতু দিয়ে সড়কপথের সাথে একইদিনে রেল চলাচল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেছেন, ‘কোন কারনে যদি আমরা একই দিনে রেল উদ্বোধন করতে না পারি, তাহলে আমরা দ্বিতীয় একটা চিন্তা রেখেছি। সেটা হলো, ঢাকা থেকে ভাঙা পর্যন্ত ২০২২ সালের ১৬ ডিসেম্বরে রেল অপারেট করবো।’

আজ মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়া প্রান্তে ভায়াডাক্ট-২ এলাকা পরিদর্শনে এসে এ কথা বলেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

এসময় তিনি জানান, পুরো রেল প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৭১% সম্পন্ন হয়েছে।

রেলমন্ত্রী বলেন, আসছে ডিসেম্বরের মধ্যে সেতু কতৃপক্ষ যদি মূল সেতুতে কাজ শুরু করতে না দেয় তাহলে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের যে বর্তমান লক্ষ্যমাত্রা অর্থাৎ আগামী বছরের জুনে তখন একইসাথে রেল চলাচল শুরু করা যাবে না।

পদ্মা সেতু রেলসংযোগ প্রকল্পের রেলওয়ে ট্র্যাক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হাই জানান, ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত এই রেললাইনের দৈর্ঘ্য ১৭০ কিলোমিটার। যার মধ্যে আধুনিক ও যাত্রীবান্ধব ১০ টি স্টেশন থাকবে। মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ভায়াডাক্ট-২, পদ্মা মূল সেতু ও শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে ভায়াডাক্ট-৩ সবমিলিয়ে পদ্মা সেতু অংশে রেলের কাজের অগ্রগতি ১৩.৩১ শতাংশ।

পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের ইলেকট্রিকাল কনসালটেন্ট (সিএসসি) প্রদীপ কুমার সাহা জানান, ব্রডগেজ রেললাইনের উপরে প্রতিটি রেলে ৮-১০ টি রেলকোচ থাকবে। নতুন ১০০ টি কোচ আসবে। দূর্ঘটনারোধে কেন্দ্রীয় কন্ট্রোল রুমের মাধ্যমে স্টেশন সিগন্যাল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

error: দুঃখিত!