২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
বুধবার | সন্ধ্যা ৭:৫৩
পদ্মা সেতু চালুর পর বন্ধ হতে যাচ্ছে শিমুলিয়া ফেরিঘাট?
খবরটি শেয়ার করুন:

মৃুুন্সিগঞ্জ, ২৫ মে, ২০২২, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

পদ্মা সেতু চালু হয়ে গেলে বন্ধ হতে যাচ্ছে শিমুলিয়া ফেরিঘাট। থাকছেনা সেই চিরচেনা যানবাহনের চাপ৷

গতকাল বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (বাণিজ্য) এস এম আশিকুজ্জামান এর সাথে কথা বলে এমনটাই আভাস পাওয়া গেছে।

তিনি আমার বিক্রমপুর কে বলেন, পদ্মা সেতু চালু হয়ে গেলে শিমুলিয়া ঘাট বন্ধ করে দেয়া হবে। যেহেতু সেতু দিয়ে সব ধরনের যান চলাচলের জন্য প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে তাই ফেরি চলাচল পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হতে পারে।

তিনি বলেন, এখানকার ফেরিগুলো বিকল্প কোন রুটে নিয়ে চালানো যেতে পারে সেটি নিয়ে আমরা কাজ করছি। পাটুরিয়া সহ আমাদের অন্যান্য যে রুট আছে, এর বাইরেও সম্ভাব্য যে রুট আছে সেখানে এই ফেরিগুলো নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি৷ পদ্মা সেতু যেহেতু সব ধরনের গাড়ি চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে সেক্ষেত্রে এখানে আর ফেরি রাখার সুযোগ থাকবেনা বোধহয় আমাদের। ২৫ তারিখের পর সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় ফেরি চলাচল পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার সম্ভাবনা আছে।

তিনি বলেন, কোনকিছুর জন্যই তো কোনকিছু থেমে থাকে না। বিকল্প একটা কিছু হয়। পদ্মা সেতু জনগণের প্রাণের দাবি এবং এটা জনগণের আবেগ। এই সেতু নির্মাণের মাধ্যমে দক্ষিণবঙ্গের ২১ টি জেলার সাথে সহজ যোগাযোগ হবে জনগণের। সেক্ষেত্রে বিকল্প ফেরি সার্ভিস ভাবার তো চিন্তা নাই।

কারণ, মানুষ যখন সড়ক যোগাযোগের মাধ্যমে সহজভাবে যেতে পারবে তখন ফেরি দিয়ে আর যাবে না। তবে আমরা আমাদের অন্যান্য ফেরি চলাচলের যে রুটগুলো আছে ঐ ফেরি রুটগুলাতে আমাদের যে বর্তমান সক্ষমতা আছে সেই সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি করবো এই ফেরিগুলো ওখানে নিয়োজিত করে।

উল্লেখ্য, ১৯৮৬ সালে মাওয়া এলাকায় পদ্মা পারাপারের জন্য ফেরিঘাট চালু করে বিআইডব্লিউটিসি। পরে ২০১৪ সালে মাওয়া থেকে দুই কিলোমিটার দূরে শিমুলিয়া এলাকায় ঘাট স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে এই ঘাট থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি রুটে ৯টি ফেরি চলাচল করে।

error: দুঃখিত!