২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | বিকাল ৫:৪৮
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
পদ্মা সেতুর সর্বশেষ স্প্যানের জোড়া লাগানোর কাজ শেষ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৭ অক্টোবর, ২০২০, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

বন্যা পরিস্থিতি শেষ হতেই পদ্মা সেতুতে পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই গত ১১অক্টোবর সেতুর ৪ ও ৫ নং পিয়ারে ৩২তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর ৪হাজার ৮শ মিটার। 

এদিকে আজ শনিবার (১৭) অক্টোবর মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে শেষ হয়েছে সর্বশেষ ৪১তম স্প্যান ২এফ এর সকল অংশের জোড়া লাগানো কাজ। সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিয়ারের ওপর বসানো হবে এটি। এখন শুধু স্প্যানটির রং করার কাজ বাকি রইলো। 

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু)  দেওয়ান মোঃ আব্দুল কাদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি জানান, মোট ৪১স্প্যানের মধ্যে সেতুতে বসাতে আর বাকি আছে ৯টি স্প্যান। এর মধ্যে ৬টি স্প্যানের রং দেওয়ার কাজ সম্পূর্ন হয়েছে। বাকি ৩টি স্প্যানের মধ্যে ২টি স্প্যানের জোড়া লাগানোর কাজ আগেই শেষ হয়েছে।  ৪১তম স্প্যান টির (ফিটিং) জোড়া লাগানোর কাজ আজ সকালে শেষ হলো।

সেতু সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা যায়, প্রস্তুত হওয়া স্প্যানগুলোর মধ্যে আগামী ২০ অক্টোবর ৩ ও ৪ নম্বর পিয়ারের ওপর ৩৩তম স্প্যান,  ২৫ অক্টোবর ৭ ও ৮ নম্বর পিয়ারের ওপর ৩৪তম স্প্যান,  ৩০ অক্টোবর ২ এবং ৩ নম্বর পিয়ারের ওপর ৩৫তম স্প্যান নভেম্বর মাসের ৪ তারিখ ৩৬তম স্প্যান বসানোর প্রস্তুতি রয়েছে। আর আগামী ১০ডিসেম্বরের মধ্যে সকল স্প্যান বাসানোর নির্দেশনা রয়েছে সেতু সচিবের।

সবগুলো স্প্যান বসে গেলে দৃশ্যমান হবে মূল সেতুর পুরো অর্থাৎ ৬.১৫কিলোমিটার।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৪ই মে চীন থেকে এমভিকংসিউসং জাহাজে সেতুর গুরুত্বপূর্ন মালামাল বাংলাদেশের উদ্দ্যেশ্যে রওনা হয়। এতে ১৮০টি ট্রাস কম্পোনেন্টসহ ২০৪১টি স্টীলের তৈরি বিভিন্ন মালামাল ছিলো।

জাহাজটি সাংহাই ও সিঙ্গাপুর পোর্টে মোট ০৭ দিন বিরতি (মালামাল লোড/আনলোড) দিয়ে গত জুন মাসে চট্রগ্রাম বন্দরে পৌঁছায়। চট্টগ্রাম বন্দরে কাস্টমস শুল্ক পরিশোধ ও ক্লিয়ারেন্সের পর মংলা হয়ে জুন মাসে জাহাজটি মাওয়া এসে পৌঁছেছিলো। এরপরই মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে সরঞ্জাম দিয়ে সম্পূর্ন স্প্যান তৈরির কাজ শুরু হয়।

error: দুঃখিত!