২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | রাত ১০:৩২
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
নিজেদের সুবিধার জন্য দিঘিতে বাঁধ, গাছ পড়ে ভাঙল বসত ঘর
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১১ জুন ২০২৪, নিজস্ব প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের টংগিবাড়ীতে আনুমানিক ৩০ বছরের পুরোনো কড়ই গাছের নিচ থেকে মাটি সরে গিয়ে বসতঘর ভেঙে গেছে।

গাছটির মালিক কুয়েত প্রবাসী মিরাজ মল্লিকের অভিযোগ, উপজেলার যশলং ইউনিয়নের নৈদিঘিরপাড় এলাকার ওই দিঘিতে মাছ চাষ করার সুবিধার্থে বাঁধ দিয়ে পানিপথ আটকে দেয়ায় পানির চাপের তোড়ে বাঁধ ভেঙে ওই গাছের নিচ থেকে মাটি সরে গিয়ে বসতঘর ভেঙে গেছে।

জানা যায়, গেল শুক্রবার (৭ জুন) বিকাল ৫ টার দিকে গাছটি পূর্ব পাশে আবু তাহের মোল্লার বাড়ির উপর হেলে পড়ে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। পরে মিরাজ মল্লিক ক্ষতিপূরণ বাবদ সালিশ-মীমাংসার মাধ্যমে স্থানীয় ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে ৮০ হাজার টাকা প্রদান করেন।

কিন্তু গাছ ভেঙে পড়ার কারণে ওই প্রবাসীর একটি টিনের ঘর ও বিল্ডিং ঘর ভাঙন ঝুঁকিতে রয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

কুয়েত প্রবাসী মিরাজ মল্লিক বলেন, ‘স্থানীয় প্রভাবশালী হামিদ পাইক নিজেদের সুবিধার জন্য দিঘিতে বাঁধ দেয়ায় মূলত গাছটি ভেঙে পড়ে। তারপরও আমি যাদের ঘর ভেঙেছে তাদের ক্ষতিপূরণ দিয়েছি। কিন্তু যাদের কারনে গাছ ভেঙে পড়লো তাদের কোন বিচার হলো না। উল্টো আমার ঘর দুটি ভাঙলে এর দায় কে নেবে? তখন আমি কার কাছে বিচার চাইবো?’ ৎ

বাঁধ দেয়ার কথা শিকার করে অভিযুক্ত হামিদ পাইক বলেন, ‘আমি দিঘিটি দেখাশুনা করি। মাছ চাষ করে রফিক মিয়া, হাসান৷ তারা আমাকে বাঁধ দিতে বলেছে তাই দিয়েছি।’

error: দুঃখিত!