৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | বিকাল ৩:১০
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
‘নায়িকারা তো কারো ঘরের বউ নয়’
খবরটি শেয়ার করুন:

ঢাকাই সিনেমায় নবাগতাদের ভিড়ে আরেক নতুন মুখ ইভানা। সেলুলয়েডের প্রিয় মুখ হয়ে উঠতে চান, তবে নিজের শর্তে। কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিজের নাম জুড়তে না চাওয়া এই নবাগতা নিজেকে দাবী করলেন ‘মুক্ত শিল্পী’ হিসেবে।

আলাপের শুরুতেই ইভানা জানালেন, চলচ্চিত্রাঙ্গনে পা রাখতেই বেশ কটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান তাকে নানা শর্তে তাদের নায়িকা করতে চেয়েছিল। স্পষ্টবাদী এ নবাগতা বলে দিয়েছেন, “নায়িকারা কারো ঘরের বউ নয়।যে যা বলবে তাই করতে হবে – ব্যাপারটা তো এমন নয়। আমি একজন মুক্ত শিল্পী। আমি এখন সবার সঙ্গেই কাজ করতে চাই। ভালো গল্পের ভালো ছবিতে কাজ করতে চাই।”

ইভানার ক্যারিয়ারের শুরু সিরিজ বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে। টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজ করার পাশাপাশি চালিয়ে যাচ্ছিলেন নাচের চর্চা।

বিজ্ঞাপনে তার নৈপুণ্য চোখে পড়ে পরিচালক বাবুল রেজার। তার পরিচালনায় ‘এক পায়ে নুপূর’ সিনেমায় পার্শ্ব-চরিত্রে ডাক পড়লো ইভানার। সেই থেকেই চলচ্চিত্রের প্রেমে পড়ে গেলেন। পরিবারের সমর্থন নিয়ে রূপালী ভুবনের বাসিন্দা হওয়ার অভিযানে নামলেন।

বাবুল রেজার ছবিতেই এলো প্রথম সুযোগ। তার ‘দুই ভাইয়ের লড়াই’ ছবিতে নায়িকা চরিত্রে নেয়া হলো অভিনয় না জানা মেয়েটিকে। পরিচালক আর সহকর্মীদের সহায়তায় প্রথম পরীক্ষায় উতরে গেছেন বলে জানালেন।

“আমি অভিনয় জানতাম না, কিন্তু আমার বিজ্ঞাপনের অভিজ্ঞতা এখানে কাজে দিয়েছে খুব। তাছাড়া বাবুল স্যারের প্রতিও কৃতজ্ঞ আমি। কৃতজ্ঞ সহ-অভিনেতা আকাশের কাছে, ইউনিটের কাছে। তারা আমাকে খুঁটিনাটি শিখিয়েছে হাতে কলমে। আমার মতো নতুনের পাশে এসে তারা যেভাবে দাঁড়িয়েছেন, তা সচরাচর কেউ করে না। ”

‘দুই ভাইয়ের লড়াই’ সিনেমাটিতে ইভানার চরিত্রটি গতানুগতিক ধাঁচেরই, তবে চিত্রনাট্যে ভিন্নতা রয়েছে বলে জানালেন।

ইভানা এখন মিজানুর রহমান শামীমের সামাজিক-অ্যাকশনধর্মী ‘মরণ নেশা’ এবং অ্যাকশনধর্মী ‘তেজি নারী, লাভলুর ‘তোমার প্রেমে পড়েছি’ সিনেমাগুলোতে অভিনয় করছেন। এছাড়াও তিনি আরো  ১২টি চলচ্চিত্রে কাজ করছেন বলেও জানালেন।

কি ধরনের চরিত্রে অভিনয়ে আগ্রহী এমন প্রশ্নের উত্তরে বললেন, “আমি বরাবরই রোমান্টিক গল্পের পোঁকা।সিনেমাতে আসার আগে আমি শাবনূর আপুর ছবিগুলোই বেশি দেখতাম। তার মতো রোমান্টিক নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন আমার। ক্যারিয়ারের শুরুতে আমি রোমান্টিক নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করতে চাই।”

আরো বললেন ইতোমধ্যেই ঢাকাই সিনেমায় টিকে থাকার জন্য ছক কষতে শুরু করেছেন।

“চলচ্চিত্রে টিকে থাকতে হলে আমাকে ধৈর্য্যের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।  শুরুতে অনেক বিপত্তি আসতে পারে, কিন্তু আমি আমার লক্ষ্যে অবিচল। এখানে আমি অনেকদিন থাকতেই এসেছি।”

“আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো গল্প, দক্ষ পরিচালক নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। আমি ঠিক করেছি, একই রকম গল্পে একাধিকবার অভিনয় করবো না আমি। আর যেসব পরিচালকদের আমি বা আমার পরিচিত মহলের কেউ চেনে না, তাদের ছবিতে আমি কাজ করবো না।”

এই নবাগতা আরো বললেন, “গল্প ও চরিত্রের প্রয়োজনে সাহসী দৃশ্য বা খোলামেলা হতে আমার সমস্যা নেই। তবে অযথাই খোলামেলা হওয়ার ঘোর বিরোধী আমি। এসবের কোনো মানে হয় না।”

error: দুঃখিত!