৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বৃহস্পতিবার | দুপুর ২:৫৮
Search
Close this search box.
Search
Close this search box.
ঘুরে আসুন পদ্মা পাড়ের মাওয়া রিসোর্টে
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৬ মার্চ, ২০২২, প্রধান প্রতিবেদক (আমার বিক্রমপুর)

ঢাকার পাশে একদিনে একটু নিরিবিলি, প্রাকৃতিক পরিবেশে সময় কাটাতে চাইছেন?

আপনার ঘুরে আসার জন্য সেরা একটি জায়গা হতে পারে ঢাকার গুলিস্থান থেকে মাত্র ৪০ কিলোমিটার পরেই বিক্রমপুর তথা মুন্সিগঞ্জের মাওয়া রিসোর্ট।

ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের পাশে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া পুরাতন ফেরিঘাটের রাস্তা হয়ে কান্দিপাড়া এলাকায় ২৩ বিঘা জমির উপর নির্মিত এই রিসোর্টটি দিনদিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। ঢাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরা আসছেন এখানে প্রকৃতির সাথে সময় কাটাতে।

পুরো রিসোর্ট নিয়ে ভিডিও প্রতিবেদন: 

পুরো রিসোর্টটির চারপাশ নিরিবিলি সময় কাটানোর জন্য মনোরম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ঘেরা। গাছ-গাছালি, পাখির কলতান, রঙিন প্রজাপতির উড়ে বেরানো, নানারঙের ফুলের উপস্থিতি পর্যটকদের আকৃষ্ট করে।

মাওয়া রিসোর্টের কটেজগুলো প্রকৃতি ঘেরা। তাই পর্যটকদের কাছে সেরা এই রিসোর্টটি। ছবি: আমার বিক্রমপুর।

পরিবারের সদস্যদের নিয়ে শহর থেকে কাছাকাছি গ্রামীণ পরিবেশে পুরো একটি দিন কাটিয়ে দেয়ার মত যথাযথ জায়গা এটি।

রিসোর্টে ঢুকতেই চোখে পরবে বিশালাকৃতির এই দিঘী। দিঘীর ঘাটলাগুলোও বেশ নান্দনিক-বাহারি রঙের ফুলে বেষ্টিত। দিঘীর চারপাশ মনোরম নারিকেল আর সুপারি গাছে ঘেরা। চাইলে বোট নিয়ে এই দিঘীতে আলাদা সময় কাটাতে পারবেন। মাওয়া রিসোর্টের প্রাকৃতিক পরিবেশ মোহিত করে তুলবে আপনাকে।

দিঘীর আরেকপাশে পর্যটকদের জন্য রয়েছে দৃষ্টিনন্দন সুইমিং পুল। পরিবারের সাথে আগত শিশু দর্শনার্থীদের জন্য রয়েছে নানারকম রাইড। রিসোর্টটিতে দিন বা রাতযাপনের জন্য রয়েছে ৫ ক্যাটেগরির এসি ও নন এসি কটেজ। কটেজগুলোও প্রাকৃতিক পরিবেশে ঘেড়া।

মাওয়া রিসোর্টে দর্শনার্থীদের জন্য রয়েছে সুইমিং পুল। ছবি: আমার বিক্রমপুর।

পর্যটকদের খাবারের জন্য রিসোর্টের ভেতরেই রয়েছে বাংলা ও চাইনিজ খাবারের ইষ্ট ওয়েষ্ট রেষ্টুরেন্ট। এছাড়া দর্শনার্থীদের চাহিদা অনুযায়ী বারবিকিউ করে থাকেন তারা। পাওয়া যাবে ফ্রেশ জুস ও ডেজার্ট আইটেম। এছাড়া কটেজের পাশে রয়েছে আলাদা একটি ফুড কোর্ট।

দিনব্যাপী বনভোজন বা নানা অনুষ্ঠানের জন্যও রিসোর্টটি বেছে নিতে পারেন। রিসোর্টের ভেতরে একসাথে ৩ টি বড় আয়োজনের অনুষ্ঠান করা যায়। রয়েছে কনফারেন্স রুমও।

মাওয়া রিসোর্ট কিভাবে যায়?

ঢাকা থেকে যারা আসতে চান তারা ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে মাওয়া চৌরাস্তায় আসবেন। এরপর মাওয়া পুরাতন ফেরিঘাটের পথ ধরে কান্দিপাড়া গ্রামে অবস্থিত এই রিসোর্টটিতে আসতে পারবেন। দর্শনার্থীদের জন্য এন্ট্রি ফি রাখা হয়েছে প্রতিজন ১০০ টাকা। তবে ১০ বছরের নিচের শিশুদের জন্য এন্ট্রি একদমই ফ্রি।

error: দুঃখিত!