৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
মঙ্গলবার | বিকাল ৩:৪০
এমপি’র নির্দেশে মুন্সিগঞ্জ ঘাটে ‘বড় লঞ্চ’ ভেড়াতে কঠোর হচ্ছে বিআইডব্লিউটিএ
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জ-ঢাকা নৌপথে চলাচলকারী যাত্রীদের জন্য কিছুটা স্বস্তির খবর দিলো বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

মুন্সিগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে মুন্সিগঞ্জ সদর-গজারিয়া আসনের সাংসদ মৃণাল কান্তি দাসের নির্দেশে কঠোর হচ্ছে বিআইডব্লিউটিএ।

বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে জানা গেছে, মুন্সিগঞ্জ থেকে ঢাকা রুটে যেসকল ছোট লঞ্চ চলাচল করে সেগুলোতে সময় বেশি লাগা ও ফিটনেসবিহীন হওয়ায় যাত্রীরা উঠতে চান না। মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটের সামনে দিয়ে দক্ষিণবঙ্গগামী বড় দৈর্ঘ্যের লঞ্চগুলো চলাচল করলেও সেগুলো মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে ভিড়ে না। ফলে এই রুটের যাত্রীদের বাধ্য হয়ে ঝুকি নিয়ে অতিরিক্ত অর্থ ব্যায় করে ট্রলারে করে বড় লঞ্চগুলোতে উঠতে হয়। এ নিয়ে মুন্সিগঞ্জবাসীর দুর্ভোগ দীর্ঘদিনের।

বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক রফিকুল ইসলাম জানান, মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটের রুট পারমিট থাকা দক্ষিণাঞ্চলের লঞ্চগুলো ঘাটে না ভিড়লে এখন থেকে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি জানান, মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে রুট পারমিট না থাকলেও এখন থেকে প্রতিদিন সকাল ৮ টা’য় মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে এমভি রফ রফ-৫ থামবে।

এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস বলেন, মুন্সিগঞ্জ-ঢাকা নৌপথকে কিভাবে আরও যাত্রীবান্ধব করা যায় সেটি নিয়ে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে। খুব শীঘ্রই ভালো কোন রেজাল্ট আসবে। এছাড়া মুন্সিগঞ্জ-ঢাকা নৌরুটে চলাচলকারী লঞ্চগুলোর বিকল্প কি হতে পারে যাতে মানুষের দুর্ভোগ কমে সেটি নিয়েও ভাবা হচ্ছে।’

বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে আরও জানা যায়, সদরঘাট থেকে দেশের ৪২টি রুটে শতাধিক লঞ্চ চলাচল করে। এর সবকয়টিই মুন্সিগঞ্জের সামনে দিয়ে যাতায়াত করে। তবে মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে ভিড়ে মাত্র ১২টি। ঘাটে না ভেড়ার কারনে প্রতিদিন সহস্রাধিক যাত্রী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঝ নদীতে ট্রলারে করে গিয়ে লঞ্চে উঠে।

বিআইডব্লিউটিএ’র মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর রাজীব চন্দ্র রায় বলেন, মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে যে কোন সময় যাতে বড় লঞ্চ ভিড়তে পারে সেজন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মুন্সিগঞ্জ-নারায়ণগঞ্জ রুটে যে লঞ্চগুলো চলাচল করে সেগুলোকে একসাইডে রাখতে বলা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক জানান, রুট পারমিট থাকা লঞ্চগুলো যাতে মুন্সিগঞ্জ লঞ্চঘাটে ভিড়ে সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

error: দুঃখিত!