২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
বুধবার | সন্ধ্যা ৭:২৮
এক টুকরো বরফ ১০ টাকা
খবরটি শেয়ার করুন:

মুন্সিগঞ্জ, ৪ এপ্রিল, ২০২২, সাজ্জাদ হোসেন (আমার বিক্রমপুর)

প্রথম রমজানে ইফতারকে কেন্দ্র করে মুন্সিগঞ্জ মিরকাদিম পৌরসভার রিকাবীবাজার বটতলা এলাকার সড়কের পাশে বরফ বিক্রি করছেন মোঃ হানিফ হোসেন।

প্লাস্টিকের বস্তার ওপর রেখেছেন বরফ। ক্রেতা আসলেই তিনি দা দিয়ে কেটে দিচ্ছেন বরফ। তারপর একটি পলিথিনের ভিতর রেখে ক্রেতার হাতে দিচ্ছেন। ক্রেতা পকেট থেকে ১০ টাকা বের করে দিচ্ছেন আরেকজনের হাতে। এভাবেই প্রতি টুকরো বরফ বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকায়। একটি পলিথিনের ভিতর এ টাকা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

বিক্রেতা হানিফ হোসেনকে দুইজন সহযোগিতা করছেন। একজন টাকা সংগ্রহ করছেন, আরেকজন বরফ শেষ হলে এনে দিচ্ছেন।

তাদের দাবি, স্থানীয় একটি বরফ কল থেকে আনা হয় এসব বরফ। গতকাল রোববার বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তিনি ১০-২০ টাকা পিস বরফ বিক্রি করে প্রায় ৫০০ টাকা আয় করেছেন। প্রায় অর্ধশতাধিক মানুষ এ বরফ ইফতারের জন্য ক্রয় করে নিয়ে গেছেন। সড়কের পাশের বরফ বিক্রি দেখে অনেকেই এসে ভিড় করছেন।

বরফ বিক্রেতা মো. হানিফ হোসেন জানান, ১৫ কেজি ওজনের বরফ এনে সেটি টুকরো টুকরো করে কেটে বিক্রি করা হয়। ১০-২০ টাকায় আকারভেদে এসব টুকরো করা হয়। গতকাল রোববার বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ১৫ কেজির ৪টি বরফের আনা হয়েছে। বেশি লাভও করা হয় না। সামান্য লাভ করেই রোজাদারদের জন্য এ বরফ বিক্রি করছি।

দিনমজুর আরাফাত হোসেন জানান, সারাদিন রোজা রেখে বাজারে ভারী পণ্য মাথায় নিয়ে ক্রেতার বাসা পর্যন্ত পৌঁছে দিয়েছি। কাজ শেষে বাসায় ফিরছিলাম পথিমধ্যে বরফ বিক্রি হচ্ছে দেখে ১০ টাকার ক্রয় করি। বাসায় রেফ্রিজারেটর নেই। সারাদিন অনেক কষ্ট করেছি। গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে গেছে। ইফতারে পানির সাথে বরফ থাকলে স্বস্তি লাগবে।

শ্রমিক বোরহান উদ্দিন জানান, সারাদিন কাজ করে ইফতারের কয়েক ঘন্টা আগে শরীর দুর্বল হয়ে যায়। তখন অনেক ক্লান্ত হয়ে পড়ে শরীর। আর দিনের বেলা গরমের মধ্যে কাজ করাও অনেক পরিশ্রমের। এর জন্য বাসায় যাওয়ার সময় ১০ টাকা পিস এক টুকরো বরফ কিনে নিয়ে যাচ্ছি। বাসায় রেফ্রিজারেটর নেই। যে এলাকায় থাকি সেখানে আশেপাশে কারও বাসাতেও নেই। এর জন্য কিনে নিয়ে যাচ্ছি। শরবত ও পানির সাথে বরফ দিয়ে খাওয়া হবে।

বটতলা এলাকার বাসিন্দা রায়হান হোসেন জানান, এ বরফ স্বাস্থ্যকর কিনা জানিনা। কিন্তু পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিলেই হবে। এত কম টাকায় বরফ কোথাও পাওয়া যাবে না। নিম্ন আয়ের মানুষজন কম টাকায় বরফ পেয়ে খুশি।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক আসিফ আল আজাদ জানান, ভোক্তাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, যেহেতু রমজানে স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া উচিৎ তাই এসব বরফ স্বাস্থ্যকর কি না তা যাচাই-বাছাই করে কেনা নেয়া প্রয়োজন।

error: দুঃখিত!