ইতিহাসে বিক্রমপুর

প্রখ্যাত ভারতীয় বাঙালি লেখক সমরেশ বসু বিক্রমপুরের গর্ব

সমরেশ বসু (১৯২৪-১৯৮৮) প্রখ্যাত ভারতীয় বাঙালি লেখক, ঔপন্যাসিক। কালকূট ও ভ্রমর তার ছদ্মনাম।তার রচনায় রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড, শ্রমজীবী মানুষের জীবন এবং যৌনতাসহ বিভিন্ন অভিজ্ঞতার সুনিপুণ বর্ণনা ফুটে ওঠে। ১৯৮০ সালে তিনি সাহিত্য একাডেমী পুরস্কার লাভ করেন। বিক্রমপুরে বাল্যকাল তার শৈশব কাটে বাংলাদেশের বিক্রমপুরে আর কৈশোর কাটে কলকাতার উপকণ্ঠ নৈহাটিতে। বিচিত্র সব অভিজ্ঞতায় তার জীবন ছিল পরিপূর্ণ। এক সময় মাথায় ফেরি করে ...

Read More »

বল্লাল সেনের দিঘি বাস্তবে নেই, ওয়েবসাইটে আছে

সরকারি তথ্য বাতায়নে মুন্সিগঞ্জ জেলার অন্যতম একটি দর্শনীয় স্থান হিসেবে হাজার বছরের পুরোনো রাজা বল্লাল সেনের দিঘি বা রামপালের দিঘির নাম আছে। ঢাকা থেকে কীভাবে এই দিঘি দেখতে আসতে হবে, তারও নির্দেশনা সেখানে দেওয়া আছে। চমৎকার এই বর্ণনা পড়ে কেউ এই দিঘি দেখতে এলে ভুল করবেন। কারণ, এখানে কোনো দিঘি নেই। উল্টো দেখতে পাবেন ভরাট করা জায়গায় একাধিক ভবন। তবে ...

Read More »

বিক্রমপুরের মেয়ে জাপানে ‘ইয়াং ট্যালেন্ট’!

জাপানের গুরুত্বপূর্ণ প্রায় সকল এলাকায় বিজ্ঞাপনের বিলবোর্ডে ,বিশ্বখ্যাত সনি কোম্পানির বিজ্ঞাপনে্, অথবা আসাহি বিয়ারের পোস্টারে কিংবা চলার পথে ট্রেনের ভিতরে বিভিন্ন প্রসাধনীর বিজ্ঞাপনের পোস্টারে প্রতিদিন প্রায় বেশ কয়েকবার যাকে চোখে পড়ে তিনি হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ২৩ বছরের তরুণী রোলা । ২৪ ঘণ্টাই আছেন জাপানের কোন না কোন জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলের পর্দায় । বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জাপানের ফ্যাশন আইকন রোলা দেশটির শো ...

Read More »

বিক্রমপুরের গর্ব ড. হেলেনা ফেরদৌসী!

শেখ রাসেলঃ আমাদের বিক্রমপুরের ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও এগিয়ে চলছে সমান তালে। বিশ্ব দরবারে আমাদের বিক্রমপুরকে নিয়ে যাচ্ছে এক অনন্য অসাধারন উচ্চতায়। তেমনি একজন কৃতি সন্তান হচ্ছেন ড. হেলেনা ফেরদৌসী । তিনি আমাদের গর্ব আমাদের অহংকার। ড.হেলেনা ফেরদৌসী জন্মগ্রহণ করেন বিক্রমপুর শ্রীনগর থানার বাশাইল ভোগ গ্রামে। স্বীয় মেধা ও গুণে পৌছে গেছেন এক মহান উচ্চতায়। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ...

Read More »

বিক্রমপুরের অনন্য প্রতিভা, ইমদাদুল হক মিলন

ইমদাদুল হক মিলন ১৯৫৫ সালের ৮ সেপ্টেম্বর বিক্রমপুরের মেদিনীমণ্ডল গ্রামে নানার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। পৈতৃক নিবাস বিক্রমপুরের লৌহজং থানার পয়সা গ্রামে। তাঁর পিতা গিয়াসুদ্দিন খাঁন এবং মাতা আনোয়ারা বেগম। ইমদাদুল হক মিলন ১৯৭২ সালে পুরনো ঢাকার গেন্ডারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং ১৯৭৪ সালে জগন্নাথ কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ১৯৭৯ সালে জগন্নাথ কলেজ থেকেই স্নাতক (সম্মান) সম্পূর্ণ করেন। ...

Read More »

ড. ফখরুদ্দীন আহম্মেদ; বিক্রমপুরের গর্ব

ডঃ ফখরুদ্দীন আহম্মেদ ১৯৪০ সালের ১ মে বিক্রমপুরের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার নগরকান্দি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন । পিতা ডাঃ মহিউদ্দিন আহম্মেদ । ফখরুদ্দীন আহম্মেদ ১৯৫৫ সালে পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া হাই স্কুল থেকে ম্যাট্রিক,১৯৫৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে মেধাতালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করে ইন্টারমেডিয়েট,১৯৬০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে অনার্সে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম হন এবং ১৯৬১ সালে এম. এ. পাশ করেন ।১৯৭১ সালে ...

Read More »

সত্যেন সেনের ‘পদচিহ্ন’ ও সোনারং গ্রামের চিত্র

শেখ রাসেলঃ  দুই বাংলার জনপ্রিয় লেখক সত্যেন সেন ইতিহাস ও ঐতিহ্যের লীলাভূমি বিক্রমপুর এর সোনারং গ্রামে ১৯০৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন ।গ্রাম বাংলার পটভূমিতে লেখা তাঁর ‘পদচিহ্ন’ উপন্যাস বাঙালী জীবনের এক মহাকাব্য । পদচিহ্ন উপন্যাস মূলত সোনারং গ্রামের পটভূমিতে লেখা হয়েছে । যদিও তিনি উপন্যাসে গ্রামের নামটি শ্রীপুর লিখেছেন। সোনারং গ্রামের পটভূমিকায় পদচিহ্ন লেখা হলেও এ উপন্যাসে এই জাতি ও এই দেশের এক ভাঙ্গাগড়ার ইতিহাসকেই লিপিবদ্ধ করার চেষ্টা করা হয়েছে ।পদচিহ্ন উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৬৮ খ্রিস্টাব্দে । অনুমান করা হয় তিনি জেলে বসেই পদচিহ্ন লেখেন ।পদচিহ্ন উপন্যাস দুই ...

Read More »

ঐতিহ্যের লীলাভূমি বিক্রমপুর; একাল সেকাল

ঐতিহাসিক জনপদ বিক্রমপুর, স্বাধীন বাংলার রাজধানী বিক্রমপুর আজ ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। এক সময়ের সেই গৌরবের রাজধানী বিক্রমপুর এখন অতিতের নিরব সাক্ষী মাত্র। নির্জন ভগ্নস্তূপের উপর দাঁড়িয়ে আছে। অস্তিত্বরক্ষার প্রাণান্তকর চেষ্টায় কেবল মৌনমুখের নীরব হাতছানি। রক্ষা করার কেউ নেই। এমনকি ঐতিহ্যিক অবয়বের শেষ চিহ্নটুকু রক্ষা করতে ব্যর্থ। জাতীয়ভাবে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগেরই তা রক্ষণাবেক্ষণের কথা। কিন্তু বাস্তবে এর প্রয়াস পদক্ষেপ নামসর্বস্ব সীমানায় অবরদ্ধ। ...

Read More »

মুন্সীগঞ্জে মাটির নিচে পাওয়া প্রাচীন সোনা-রূপা ভর্তি কৌটার আসল কাহিনী

মুন্সীগঞ্জে মাটির নিচ থেকে উদ্ধার করা সোনা-রূপা নিয়ে অনুসন্ধানে প্রকৃত তথ্য বেরিয়ে এসেছে। এগুলো প্রায় চার দশক ধরে মাটির নিচে ছিল। এই সোনা-রূপার গহনাগুলো ছিল হিন্দু সম্প্রদায়ের রথের জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রা বিগ্রহের। সদর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন ইদ্রাকপুরে মাটি খননের সময় দুই শ গ্রাম ওজনের সোনা ও রূপাসহ তামার কৌটা উদ্ধার হয়। নুরুল ইসলাম কমান্ডারের বাড়িতে বহুতল ভবন নির্মাণে শ্রমিকের ...

Read More »

বিক্রমপুরের চার পাশ ঘেরা নদ নদী গুলোর অবস্থান ও বর্ননা

প্রাচীনকাল থেকে বাংলাদেশের নদীগুলো বিভিন্ন সময় তার গতিপথ পরিবর্তন করে দেশের ভূ-প্রকৃতির পরিবর্তন করেছে। একসময়ের বিশাল ব্রহ্মপুত্র আজ মরা নদীর সুতা, বুড়িগঙ্গা বুড়ি হয়ে জীর্ণ, গঙ্গা কীর্তিনাশ করে আজ কীর্তিনাশা পদ্মা। ১৫৫০ সালে প্রণীত জাও দ্য ব্যারোস, ১৬৬০ সালে প্রণীত ফন ডেন ব্রোক, ১৭৬৪-৭৬ সালে প্রণীত রেনেলের মানচিত্র অধ্যয়নে নদ-নদী পরিবর্তনের চিত্র পাওয়া যায়। প্রাচীনকালের নদী ব্যবস্থা জানার জন্য এর ...

Read More »
error: দুঃখিত!