শ্রীনগরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৩

মুন্সিগঞ্জ, ৭ এপ্রিল, ২০২১, শ্রীনগর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের ছত্রভোগে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় পিতা পুত্রসহ ৩ জন আহত হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) ৬ টার দিকে ছত্রভোগের আমজাত খান ষ্টোরের সামনে এই ঘটনা ঘটে।

একই এলাকার প্রতিবেশী কুদ্দুস চৌধুরীর নেতৃত্বে হামলার ঘটনায় আহত ওই এলাকার মৃত ফালু চৌধুরীর পুত্র ফকরুল চৌধুরী (৬৫), তার দুই পুত্র হেলাল চৌধুরী (৩৭) ও মোজাম্মেল চৌধুরীকে (৩৫) উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় শ্রীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, স্থানীয় জামে মসজিদের একটি টিনের চালা ন্যার্য দামে ক্রয় করেন ফকরুল চৌধুরী। এ নিয়ে আমজাতের দোকানের সামনে প্রতিবেশী কুদ্দুস চৌধুরী (৫০), ফকরুল চৌধুরীকে নিয়ে খারাপ মন্তব্য করে গালিগালাজ করলে ঘটনার সূত্রপাত হয়। এ ঘটনায় কুদ্দুস চৌধুরী ও তার ৩ পুত্র মবিন (২১), হিরু (১৭) ও আবির (১৪) ফকরুল চৌধুরীর ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বাঘড়া পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই আপন ঘটনাস্থলে আসে।

ভূক্তভোগী ফকরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, কয়েকদিন আগে আলাপ আলোচনা সাপেক্ষে মসজিদের একটি টিনের ন্যায্য মুল্যে ক্রয় করি। এ নিয়ে প্রতিবেশী কুদ্দুস চৌধুরী পূর্ব শক্রুতার জের ধরে আমাকে জড়িয়ে ওই দিন খারাপ মন্তব্য ও গালি-গালাজ করতে থাকলে আমি তার প্রতিবাদ করি। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ওপর হামলা চালায়। এসময় আমার ছেলেরা আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষরা তাদেরকেও মেরে আহত করে।
এঘটনায় শ্রীনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। অভিযুক্ত মো. কুদ্দুস চৌধুরীর কাছে এবিষয়ে জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

অপর একটি সূত্র জানায়, অভিযুক্ত কুদ্দুস চৌধুরী গত ৩ মাস আগে তার শশুর ছত্রভোগের হামিদ ফকিরকে মারধর করে জায়গা সম্পত্তির দলিলসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন ভূক্তভোগী হামিদ ফকির। তিনি বলেন, তার ৫ কন্যা সন্তান থাকলেও কোন পুত্র সন্তান নেই তার

এ ব্যাপারে বাঘড়া পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ ও শ্রীনগর থানার এসআই আপন জানান, অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য জানান...

error: দুঃখিত!