শ্রীনগরে গৃহবধূ হত্যাকান্ডের সন্দেহভাজন আসামীর মৃত্যু

মুন্সিগঞ্জ, ১৫ অক্টোবর, ২০২০, শ্রীনগর প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরের হাসাড়া ইউনিয়নের লস্করপুর গ্রামের গৃহবধু রাজিয়া (৩২) হত্যাকান্ডের সন্দেহভাজন আসামী আবুল মিস্ত্রী (৫৫) মারা গেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার মামলার সন্দেহভাজন আরেক আসামী মামুন (২৮) ঢাকার নবাবগঞ্জ থানা হাজতে আটক থাকা অবস্থায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

সে লস্করপুরের অটোগ্যারেজ মালিক আবুল মিস্ত্রীর ছেলে।

শ্যালক অটোচালক শাহ আলম জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার আজীমপুরে ভাইয়ের বাসায় ষ্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার দুলাভাই আবুল মিস্ত্রী মারা যায়। ঢাকার আজীমপুরেই তাকে দাফন করা হবে।

এর আগে প্রায় ৯ দিন পূর্বে রাজিয়ার সাথে আবুল মিস্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি ছেলে মামুন জেনে যায়। পরে বিষয়টি নিয়ে আবুলের স্ত্রী ও ছেলে মামুন তার বাবার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঝগড়াঝাটি করে আবুল বাসা থেকে রাগ করে চলে যান। তিনি বেশ কয়েক দিন লস্করপুর এলাকায় ছিলেন না। আবুল মিস্ত্রীর জন্মস্থান ঢাকার আজীমপুর হলেও লস্করপুরে বিয়ে করার কারনে এখানেই বসতি স্থাপন করায় স্থানীয় ভাবে তিনি জামাই আবুল হিসেবেও পরিচিত ছিলেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হাসাড়া ইউনিয়নের লস্করপুর গ্রামের ঢালী বাড়ী এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী ইয়াকুব ঢালীর স্ত্রী রাজিয়া বেগম (৩২) নিখোঁজ হয়। সোমবার সকাল ১১ টায় ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার নয়নশ্রী ইউনিয়নের খ্রিষ্টান পাড়ার ঝোঁপ থেকে রাজিয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে নবাবগঞ্জ থানায় মামলা রুজু করা হয়।

ঐ দিন সন্ধ্যায় এলাকাবাসী মামুন কে লস্করপুর থেকে আটক করে শ্রীনগর থানা পুলিশের হাতে তুলে দিলে পরে আসামীকে রাতে নবাবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়।

আপনার মন্তব্য জানান...

error: দুঃখিত!