মুন্সিগঞ্জে গৃহবধূর কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনা ফাস করলো পিবিআই

মুন্সিগঞ্জ, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে কুলসুম বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধুর কঙ্কাল উদ্ধার হয় গত ৫ ফেব্রুয়ারী। এবার এ ঘটনায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশনের অনুসন্ধানে খুনি গ্রেফতারের পর উদ্ঘাটন হয়েছে হত্যা রহস্য।

গতকাল শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এ বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করে মুন্সিগঞ্জ জেলা পিবিআই।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক ব্রিফিংয়ে জানান, গত ১৭জানুয়ারি বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোজ হয় গৃহবধু কুলসুম বেগম। গত ৫ফেব্রুয়ারী বিকালে বাড়ির পাশে নিজেদের জমি থেকে তার কঙ্কাল উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ৭ফেব্রুয়ারী নিহতের ছেলে কামরুল হাসান অয়ন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করলে অনুসন্ধানে নামে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন। দুই সপ্তাহের অনুসন্ধানে চিন্হিত হয় হত্যাকারী। গত ১৮ই ফেব্রুয়ারি পিবিআইয়ের অভিযানে সিরাজদিখান এলাকার রামকৃষ্ণদি এলাকা থেকে গ্রেফতার হয় কুলসুমের প্রতিবেশি আলী হোসেনের পুত্র সুমন শেখ। গ্রেফতারের পর হত্যার ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে সুমন।

তিনি আরো জানান, ছেলে অয়নকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর জন্য প্রতিবেশী সুমন শেখের কাছে ৬লক্ষ টাকা দেয় কুলসুম। ওই টাকা ফেরত চাইতে সুমনের সাথে দেখা করতে গেলে ধাড়ালো “দা” দিয়ে কুপিয়ে সুমন একাই কুলসুমকে হত্যা করে। হত্যার পর তার লাশ কচুরিপানা লুুকিয়ে রাখে সুমন।

১৮ফেব্রুয়ারি গ্রেফতারের পর সুমনের দেওয়া দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল থেকে ব্যবহৃত “দা”, নিহত কুলসুমের ব্যাগ ও অন্যান্য জিনিস পত্র উদ্ধার করে পিবিআই।

প্রসঙ্গত, কুলসুম বেগম পূর্ব হাঁসারাগাঁও গ্রামের মো. ইকবাল শেখের স্ত্রী।

আপনার মন্তব্য জানান...

error: দুঃখিত!