বোমা নয়, গ্যাস লিকেজ থেকেই মেয়রের বাড়িতে বিস্ফোরণ

মুন্সিগঞ্জ, ৭ এপ্রিল, ২০২১, বিশেষ প্রতিনিধি (আমার বিক্রমপুর)

মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র আব্দুস সালামের বাড়িতে গতকাল মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ঘটনাটিকে ‘বোমা বিস্ফোরণ’ হিসেবে প্রত্যক্ষদর্শীরা দাবি করলেও আজ সকালে জানা যায় বোমা নয়, গ্যাস লিকেজ থেকেই মেয়রের বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে।

বোমা ডিসপোজাল ইউনিটের বরাত দিয়ে মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক ‘আমার বিক্রমপুর’ কে এ তথ্য জানান। তিনি জানান, ঘটনার পরেই গতকাল রাতে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, সিআইডি ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

আজ মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রাত নয়টার দিকে পৌরসভার রামগোপালপুর এলাকায় মেয়রের বাসার তৃতীয় তলার শয়ণকক্ষে এ বিষ্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে পৌরসভার ২ প্যানেল মেয়র, ১ কাউন্সিলর, পৌরসভার সচিব ও মেয়রের স্ত্রী সহ অন্তত ১৩ জন আহত হন।

এসময় তারা পৌরসভা সংক্রান্ত কাজে সেখানে মিলিত হয়েছিলেন বলে ‘আমার বিক্রমপুর’ কে জানান ঘটনাস্থলে থাকা আহত প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা। এসময় মেয়র আব্দুস সালাম সেখানে থাকলেও সামান্য আহত হয়েছেন বলে মেয়র জানিয়েছেন। বর্তমানে তিনি নিজ বাসায় রয়েছেন।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র নিয়ে মেয়রের বাস ভবনের তৃতীয়তলার একটি কক্ষে মেয়রের সঙ্গে আলাপচারিতা করছিলেন পৌর সচিব, কাউন্সিলরসহ অন্যান্যরা। হঠাৎ করেই বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। মুহুর্তেই কক্ষের ভেতর আগুনের শিখা দেখা যায়। বিস্ফোরণে কক্ষের আসবাবপত্র, জানালার কাঁচ ফেঁটে চুরমার হয়ে যায়। এসময় বিস্ফোরনের শব্দ পেয়ে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ৩ জন কাউন্সিলরসহ অন্তত ১০ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন, মিরকাদিম পৌরসভার প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা (৫৫), আওলাদ হোসেন (৪০), কাউন্সিলর দ্বীন ইসলাম, মেয়র আব্দুস সালামের স্ত্রী কানন (৪০), তাইজুল ইসলাম (২৬), মোঃ মোশারফ (৬২), মনির হোসেন (৫০), শ্যামল দাশ (৪৫), পান্না (৫০), কালু (৪০), মেয়রের সহধর্মিণী কানন (৪০) মহিউদ্দিন (৫২) ও ইদ্রিস আলী (৫০)।

এদের মধ্যে প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ও বাকি নয়জনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য জানান...

error: দুঃখিত!