অভিবাসীদের ৫ লাখ ডলার অনুদান দিলেন পোপ

যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করতে থাকা মেক্সিকোতে অবস্থানরত অভিবাসীদের পাঁচ লাখ ডলার সহায়তা দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। ভ্যাটিকানের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ক্যাথলিক চার্চের পিটার পেন্স ফান্ডের মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সংগৃহীত তহবিল থেকে এই সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এর আগে অভিবাসী ঠেকাতে সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন পোপ। ক্যাথলিক চার্চের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মিডিয়া কাভারেজ কমে যাওয়ায় এসব অভিবাসীর জন্য বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সহায়তার পরিমাণ কমে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে অনুদান দিলেন পোপ।

মধ্য আমেরিকা থেকে উত্তরে মার্কিন সীমান্তের দিকে এগোতে থাকা অভিবাসী প্রার্থীদের সংখ্যা কমাতে মেক্সিকো সরকারের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। এসব অভিবাসী প্রার্থী মেক্সিকোর ভেতর দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করে থাকে।

পিটার পেন্স কার্যালয় বলেছে, ২০১৮ সালে অভিবাসীদের ছয়টি দল মেক্সিকোতে প্রবেশ করে। এতে মোট মানুষের সংখ্যা ছিল ৭৫ হাজার। অন্য অভিবাসী দলগুলোর আসার ঘোষণা দেওয়া হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে না পারা এবং আশ্রয় আর জীবিকা ছাড়া এই সব মানুষই ছিল অসহায়। ক্যাথলিক চার্চ এসব মানুষের মধ্যে কয়েক হাজারকে ধর্মীয় এলাকায় আশ্রয় দিয়েছে, সরবরাহ করা হয়েছে বাসস্থান আর পোশাকের মতো মৌলিক প্রয়োজন।

এসব অভিবাসীর অনেকেই বলেছেন নিপীড়ন, সহিংসতা আর দারিদ্র্যের হাত থেকে বাঁচতে নিজেদের দেশ ছেড়েছেন তারা। গত সপ্তাহে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন দক্ষিণাঞ্চলীয় চিয়াপাস রাজ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টার সময় ৪০০ অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে।

পিটার পেন্স কার্যালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এই জরুরি পরিস্থিতির মিডিয়া কাভারেজ কমে এসেছে ফলে বিভিন্ন সরকার ও ব্যক্তির তরফ থেকে এই অভিবাসীদের সহায়তা দেওয়ার পরিমাণও কমে গেছে’।

এমন প্রেক্ষাপটে মেক্সিকোর অভিবাসীদের সহায়তায় পাঁচ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। ১৬টি ধর্মীয় এলাকায় ২৭টি প্রজেক্টের মাধ্যমে অভিবাসী প্রার্থীদের মৌলিক সহায়তা দিতে এই অর্থ ব্যয় হবে বলেও ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: দুঃখিত!